মেইন ম্যেনু

মিয়ানমার সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া দেবে বাংলাদেশ

মাদক ও চোরাচালান নিয়ন্ত্রণে বাংলাদেশ সরকার মিয়ানমার সীমান্তে রিংরোড এবং কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

রোববার দশম জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশনে ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর এক প্রশ্নের উত্তরে প্রতিমন্ত্রী জাতীয় সংসদকে এ তথ্য জানান।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সীমান্তে অপরাধ দমন তথা মাদকদ্রব্য চোরাচালান প্রতিরোধে প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারত, মিয়ানমার, যুক্তরাষ্ট্রসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের স্থল সীমান্তে কাঁটাতারের বেড়া এবং তৎসংলগ্ন রিংরোড রয়েছে। এই রিংরোড দিয়ে গাড়িতে টহলের মাধ্যমে গোটা সীমান্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়। প্রতিবেশী দেশ ভারত রিংরোড এবং কাঁটাতারের বেড়ার মাধ্যমে সীমান্তে নিরাপত্তা জোরদার করলেও বাংলাদেশ সীমান্তে এ ধরনের কোনো ব্যবস্থা নেই। তবে সরকার মিয়ানমার সীমান্তে ২৮৫ কিলোমিটার রিংরোড ও কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কয়েকটি ধাপে এই নিরাপত্তা ব্যবস্থা তৈরি করা হবে।’

প্রতিমন্ত্রী জানান, সাম্প্রতিক সময়ে মিয়ানমার সীমান্তে ইয়াবাসহ আরো কয়েকটি মাদক চোরাচালান ভয়াবহ আকারে বেড়েছে। এছাড়া সীমান্তে মিয়ানমার সীমান্ত ফোর্স বিজিপির হস্তক্ষেপ বৃদ্ধি পাওয়ায় ওই দেশটি সীমান্তজুড়ে কাঁটাতারের বেড়া এবং রিংরোড তৈরি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

আরেক সংসদ সদস্য মো. রুস্তম আলী ফরাজীর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, ভারতীয় নাগরিক অনুপ চেটিয়া ওরফে গোলাপ বড়ুয়া বিভিন্ন অভিযোগের সাজা ভোগ করার পর বন্দী হিসেবে বাংলাদেশের কারাগারে আটক রয়েছেন। সম্প্রতি তিনি স্বেচ্ছায় স্বদেশ প্রত্যাবাসনের আবেদন করলে তার আবেদন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই