মেইন ম্যেনু

ছাত্রদলের আহ্বায়ক খুন

মিরসরাইয়ে রোববার হরতাল

চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক আদিল মাহমুদ চৌধুরীকে (৩০) সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা করেছে। গত বৃহস্পতিবার (৯ অক্টোবর) রাত সাড়ে নয়টার সময় উপজেলার সাহেরখালী ইউনিয়নের ভোরের বাজার এলাকায় এই হত্যার ঘটনা ঘটে।
ছাত্রদল নেতাকে হত্যার প্রতিবাদে শুক্রবার উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন উপজেলা সদরে বিক্ষোভ মিছিল করে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন। আদিল সাহেরখালী ইউনিয়নের পূর্ব সাহেরখালী গ্রামের আবু তাহের ছেলে।
বিক্ষোভ মিছিলে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক নুরুল আমিন বলেন, ‘শনিবারের মধ্যে আদিলের খুনিদের গ্রেপ্তার না করলে আগামী রোববার মিরসরাইয়ে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালন করা হবে।
নুরুল আমিন জানান, বৃহস্পতিবার রাত ৯টার সময় সাহেরখালীর ভোরের বাজারে একটি চায়ের দোকানে আদিল মাহমুদ তার কয়েকজন বন্ধুদের সঙ্গে বসে গল্প করছিল। এসময় দুইটি অটোরিকসা করে ১০-১২ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী তাকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ভোরের বাজারের পশ্চিম পাশে তুলে নিয়ে যায়। সেখানে তাকে গুলি করে এবং উপর্যপুরী কুপিয়ে হত্যা করে।
একপর্যায়ে স্থানীয়রা তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে মিরসরাই সদরের মাতৃকা হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তিনি এ হত্যাকাণ্ডের জন্য স্থানীয় ছাত্রলীগ নামধারী সন্ত্রাসীদের দায়ী করেন।
সাহেরখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল মোস্তফা ও ৬ নন্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবুল হাশেম জানান, গত কিছুদিন যাবত আদিলের সঙ্গে স্থানীয় যুবদল নেতা শফির জায়গা-জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। দুই পক্ষেরই বিরোধ সংক্রান্ত বিষয়ে থানায় মামলা রয়েছে। ওই বিরোধের জের ধরে এই হত্যাকাণ্ডের ঘটে থাকতে পারে।
উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক মাঈনুল ইসলাম রানা বিএনপির নেতার অভিযোগের নিন্দা জানিয়ে বলেন, ‘স্থানীয় যুবদল নেতা শফির সঙ্গে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আদিল হত্যাকাণ্ড ঘটে। শফির নেতৃত্বে প্রকাশ্যে আদিল হত্যাকান্ড ঘটে। আমরাও সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে আদিল হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার দাবি করছি।’
মিরসরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইমতিয়াজ এমকে ভূঁইয়া জানান, ছাত্রদল নেতা হত্যার ঘটনায় এখনও থানায় কোন অভিযোগ দায়ের হয়নি। তবে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
এদিকে ছাত্রদল নেতা আদিল মাহমুদকে হত্যার প্রতিবাদে শুক্রবার বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে উপজেলা বিএনপি, ছাত্রদল ও যুবদলের নেতা-কর্মীরা। শুক্রবার বাদ আসর নিহত আদিল মাহমুদ চৌধুরীর নিজ বাড়িতে জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই