মেইন ম্যেনু

ভূমিকম্পে অলৌকিকভাবে সোজা হলো শিশুর বাঁকা পা

ভূমিকম্পে অলৌকিকভাবে সবুজ (৫) নামে ঠাকুরগাঁওয়ের এক প্রতিবন্ধী শিশুর বাঁকা পা সোজা হয়ে গেছে। জন্ম থেকেই শিশুটি প্রতিবন্ধী ছিল। এখন সে গোড়ালীর পরিবর্তে পায়ের পাতা দিয়ে হাটতে পারছে।

সবুজ ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার মধুপুর কালিতলা গ্রামের দিনমজুর আ. রাজ্জাকের ছেলে।

শিশুটির পরিবার জানায়, জন্ম থেকেই সবুজের ডান পা ছিল বাঁকা। পায়ের পাতার পরিবর্তে গোড়ালী দিয়ে সে হাঁটা চলা করতো। চিকিৎসার জন্য পরিবারের লোকজন বিভিন্ন ডাক্তার, কবিরাজ ও হেকিমের শরণাপন্ন হলেও ফল পায়নি।

শুক্রবার পার্শ্ববর্তী ঘনিমহেশপুর গ্রামে তার নানার বাড়িতে বেড়াতে আসে সবুজ। শনিবার দুপরে ভূমিকম্প শুরু হলে তার নানী হোসনে আরা বাঁকা পা মাটিতে চেপে ধরে থাকেন। এতে অলৌকিকভাবে তার ডান পা ভালো হয়ে যায়। বর্তমানে শিশুটি মাটিতে পায়ের পাতা ফেলে হাঁটা চলা করতে পারছে।

এ ব্যাপারে সবুজের নানী হোসনে আরা বেগম জানান, শিশুটি যখন হাঁটতে শেখে তখন সে ঠিকমত চলতে পারতো না। পায়ের গোড়ালী দিয়ে হাঁটা চলা করতো। হেকিম কবিরাজদের পরামর্শে তিনি ভূমিকম্পের জন্য অপেক্ষা করতে থাকেন। ভূমিকম্পের সময় তিনি শিশুটির পা মাটিতে চেপে ধরেন এবং ভূমিকম্প শেষে অলৌকিকভাবে তার ডান পা ভালো হয়ে যায়।






মন্তব্য চালু নেই