মেইন ম্যেনু

ভালোবাসার মানুষটির ব্যাপারে যেসব কথা বন্ধুদের না বলাই ভালো

প্রেমের সম্পর্ক নিয়ে বন্ধুদের সাথে কথা বলতে ভালোবাসেন অনেকেই। কিন্তু এর যে একটা সীমা রয়েছে তা ভুলে যান অনেকেই এবং বন্ধুদেরকে বলে ফেলেন নিজের প্রেমিক/প্রেমিকার ব্যাপারে একান্তই ব্যক্তিগত কিছু ব্যাপার। এর ফলে পরবর্তীতে আপনার সঙ্গীটিকে হতে হয় বিব্রত। সাথে আপনাকেও অস্বস্তিকর কোন পরিস্থিতিতে পড়তে হতে পারে। অনেক সময় এটাই হয়ে ওঠে সম্পর্ক ভাঙার মুখ্য কারণ! এসব ঝামেলা এড়াতে জেনে নিন, বন্ধুদের সাথে আলোচনার সময়ে সঙ্গীর কোন কোন ব্যাপারে একদম কথা বলতে হয় না!

১) তার আয়

আপনার সঙ্গীর আর্থিক অবস্থা সম্পর্কে যদি আপনি জেনে থাকেন তবে তা আপনাদের দুজনের মাঝে সীমাবদ্ধ রাখাটাই ভালো। সঙ্গী চাকরি করছে কি করছে না, ভালো বেতন পাচ্ছে কি পাচ্ছে না এই ব্যাপারগুলো খুবই ব্যক্তিগত। বন্ধুদের সাথে আলাপে এসব ব্যাপার নিয়ে আলোচনা করবেন না।

২) তার বিভিন্ন বদভ্যাস

আপনার সাথে যদি আপনার সঙ্গী স্বস্তি বোধ করে, তবে তার বিভিন্ন অভ্যাস আপনার সামনে প্রকাশ হবে এবং তার কিছু কিছু আপনার কাছে খারাপ লাগতেই পারে। এ নিয়ে কথা বলতে চাইলে আপনার সঙ্গীর সাথেই বলুন, বন্ধুদের কাছে অভিযোগ করবেন না।

৩) তার অতীত

নিজের অতীতের ব্যাপারে যদি তিনি আপনাকে বলে থাকেন, তবে তার মানে হলো তিনি আপনাকে অনেক বিশ্বাস করেন। তার বিশ্বাসের মর্যাদা রাখতে হলে এ ব্যাপারে আপনার বন্ধুদের সাথে কথা না বলাটাই ভালো।

৪) তার ধর্মীয় এবং রাজনৈতিক মতামত

নিজেদের মাঝে ধর্ম এবং রাজনীতি নিয়ে হয়তো আলোচনা করেন আপনারা। কিন্তু সঙ্গীর মতবাদ নিয়ে অন্য কারো সাথে আলোচনা না করাই ভালো। এতে অকারণে বিদ্বেষ তৈরি হবার সম্ভাবনা থাকে। তিনি যদি স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন তবে নিজেই এসব ব্যাপারে অন্যদের জানাবেন।

৫) তার বিভিন্ন ভীতি147-150x150

একজন মানুষ তার ভয়-ভীতির কথা অন্যকে জানাতে পছন্দ করেন না, বিশেষ করে পুরুষেরা। তার ভীতির ব্যপারে জেনে থাকলেও তা অন্য কারো কাছে প্রকাশ করবেন না। তিনি অবশ্যই চাইবেন না এ ব্যাপারে অন্য কেউ জানুক।

৬) আপনাদের ঝগড়া

সম্পর্কের মাঝে অন্যতম স্পর্শকাতর ব্যাপার হলো ঝগড়া, কথা কাটাকাটি। আপনাদের দুজনের মাঝে কোনো সমস্যা হলে তা সমাধানও আপনাদেরই করতে হবে। এর মাঝে অন্য কাউকে টেনে আনা একেবারেই অন্যায়। এ কারণে ঝগড়ার ব্যাপারটা অন্যদের না জানানোই ভালো।

৭) অন্যদের ব্যাপারে তার মতামত

আপনার বন্ধুদের ব্যাপারে তার কিছু বলার থাকতে পারে, থাকতে পারে নিজস্ব কিছু মতামত। ভালো হোক, খারাপ হোক, তা বন্ধুদের জানাতে হবে এমন কোনো কথা নেই। বরং তাতে হিতে বিপরীত হয়ে যাবার সম্ভাবনা থাকে।

৮) গোপনীয় কিছু যা আপনার সঙ্গী জানেন না

আপনাদের সম্পর্ক যদি বেশ গভীর হয়ে থাকে তবে এই ব্যাপারটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। আপনি এমন কিছু করেছেন যা আপনার সঙ্গীকে আপনি জানান নি অথচ জানিয়েছেন একজন বন্ধুকে। এমন অবস্থায় যদি আপনার সঙ্গী এ ব্যাপারে জানতে পারে, এবং আপনি তাকে না জানিয়ে সেই বন্ধুকে জানিয়েছেন সেটাও জানতে পারে, তবে তিনি খুবই আহত হবেন।






মন্তব্য চালু নেই