মেইন ম্যেনু

ব্রিটেনে ৯০ শতাংশ নারী যৌন হয়রানির শিকার

ব্রিটেনে ৯০ শতাংশ নারীই রাস্তায় যৌন হয়রানির শিকার হয়ে থাকেন। দেশটির প্রতি দশজন নারীর মধ্যে নয়জনই ১১ থেকে ১৭ বছর বয়সের মধ্যে রাস্তায় যৌন হয়রানির শিকার হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয় ও যৌন নির্যাতনবিরোধী সংগঠন হল্লাব্যাক পরিচালিত ‘দ্য কর্নেল ইন্টারন্যাশনাল সার্ভে অন স্ট্রিট হ্যারাজমেন্ট’ শীর্ষক জরিপ প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। এতে ব্রিটেন ছাড়াও বিশ্বের ২২ ‍টি দেশে রাস্তায় যৌন হয়রানির চিত্র তুলে ধরা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ৯০ ভাগ ব্রিটিশ নারীই জানিয়েছেন তারা ১১ থেকে ১৭ বছর বয়সের মধ্যে রাস্তায় যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন। আর এই সংখ্যা যৌন হয়রানির আর্ন্তজাতিক যে হার রয়েছে তার চেয়ে গড়ে ৮৪ শতাংশ বেশি।

জরিপে অংশ নেয়া আট থেকে ৮৭ শতাংশ ব্রিটিশ নারী জানিয়েছেন, ভ্রমণের সময় যৌন হয়রানির কারণে তারা তাদের গাড়ির রুট পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছেন। একই কারণে রাস্তা পরিবর্তনে বাধ্য হয়েছেন ৭২ শতাংশ আমেরিকান নারী। ৬৭ শতাংশ ব্রিটিশ নারী জানিয়েছেন, যৌন হয়রানির কারণে তারা তাদের পোশাক পরিবর্তন করতে বাধ্য হয়েছেন। দক্ষিণ আফ্রিকায় একই ঘটনা ঘটেছে ৮০ শতাংশ নারীর বেলায়। এছাড়া বেশ কিছু সংখ্যক জানিয়েছেন যৌন হয়রানির কারণে তারা চাকরি ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন অথবা তাদের চাকরিচ্যুত করা হয়েছিল। আর ৮০ শতাংশ ভারতীয় নারী জানিয়েছেন, যৌন হয়রানির ভয়ে তারা রাতে রাস্তায় বের হতে চান না।

১৬ হাজার নারীর ওপর পরিচালিত ওই জরিপে দেখা গেছে , বেশিরভাগ নারীই বয়ঃসন্ধিকালে রাস্তায় যৌন হয়রানির শিকার হয়েছেন। এরা যানবাহনে অশ্রাব্য ভাষা এবং শারীরিকভাবে যৌন হয়রানির শিকার হন। ২২টি দেশের পঞ্চাশ ভাগেরও বেশি নারী জানিয়েছেন, তারা শরীরে হাত বুলানো বা জড়িয়ে ধরার মত ঘটনার সম্মুখীন হয়েছেন।

হল্লাব্যাকের নির্বাহী পরিচালক দেবযানী রায় জানান, মানুষ এটা স্বীকার করতে চায় না যে, কিশোরী অবস্থায় মেয়েরা এ ধরনের পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়। তবে তারা ধীরে ধীরে যখন বয়ঃপ্রাপ্ত হয়, তখন ওইসব ঘটনা তাদের মনের ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। এটি একটি বৈশ্বিক সমস্যা।






মন্তব্য চালু নেই