মেইন ম্যেনু

বেইজিং-এর নাম মুম্বাই দিলে কি সেটা ভারতের হয়ে যাবে?

অরুণাচল নিয়ে চীনের অধিকার খাটানোর বিষয়ে চীনের তীব্র সমালোচনা করলেন ভারতের বণিকসভা ও রাজনৈতিক দলের নেতারা। তাঁদের প্রত্যেকেরই দাবি, অরুণাচলকে নিজেদের অংশ বলে দাবি করার কোনও অধিকারই নেই চীনের।

এই রাজ্যটি ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। অরুণাচল চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি তিচি লালা ও সচিব তার নাচুং চিনকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘বেইজিংয়ের নাম বদলে যদি মুম্বাই রাখা হয়, তাহলেই কি চীনের রাজধানী ভারতের অংশ হয়ে যাবে?’

অরুণাচল প্রদেশের বিজেপি সভাপতি তাপির গাও বলেছেন, ‘১৯৫৯ সালে জোর করে তিব্বত দখল করে চীন। দালাইলামা জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মঞ্চে বহুবার বলেছেন, অরুণাচল প্রদেশ ভারতের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ। তাই চীন যেটা করেছে সেটা ভিত্তিহীন। ইতিহাস থেকে বেজিংয়ের শিক্ষা নেওয়া উচিত। ১৯১৪ সালে তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের প্রতিনিধি ম্যাকমোহন শিমলায় চীনের প্রতিনিধির সঙ্গে সীমান্ত চুক্তি করেছিলেন। চীন জোর করে তিব্বত দখল করে রেখেছে। তাই অরুণাচল নিয়ে তাদের দাবি অর্থহীন। ’

অরুণাচলের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী নাবাম টুকিও চীনের সমালোচনা করে বলেছেন, অরুণাচলের ৬টি জায়গার নতুন নামকরণের কোনও অর্থ নেই। অরুণাচল ভারতের অংশ। কেন্দ্রের উচিত বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে দ্রুত সমাধানের ব্যবস্থা করা।

সূত্র: কলকাতা টোয়েন্টিফোর






মন্তব্য চালু নেই