মেইন ম্যেনু

বিশ্বভ্রমণে বেরিয়ে বাংলাদেশে এসে নিখোঁজ ফরাসি যুবক (ভিডিও)

বিশ্বভ্রমণে বেরিয়ে বাংলাদেশে আসার পর খোঁজ মিলছে না এক ফরাসি নাগরিকের। তার নাম আর্থার ওঞ্জের। গত ২৬ জানুয়ারির পর থেকে তিনি নিখোঁজ। ৯ জানুয়ারি ভারতের পেট্রাপোল হয়ে বাংলাদেশে আসেন তিনি। ২৯ বছর বয়সি এই ব্যক্তির সন্ধানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহায়তা চেয়েছেন ফরাসি রাষ্ট্রদূত।

পায়ে হেঁটে পাড়ি দেবেন গোটা বিশ্ব। সেই স্বপ্ন বুকে নিয়ে বছর তিনেক আগে ঘর ছাড়েন ২৯ বছর বয়সী ফরাসী নাগরিক আর্থার ওঞ্জে। কখনো ঘোড়ায় চড়ে, কখনোবা সাইকেল চেপে চলতে থাকে তার অভিযান। নানা দেশ ঘুরে রাশিয়া, উজবেকস্তান হয়ে আসেন ভারতে। গত ৯ই জানুয়ারি এক মাসের ভিসা নিয়ে বেনাপোল দিয়ে ঢোকেন বাংলাদেশে। কথা ছিল এখান থেকে মিয়ানমার হয়ে যাবেন মায়লশিয়া।

কিন্তু হঠাৎই ছেদ পড়ে স্বপ্ন যাত্রায়। আর্থারের পরিবারের দাবি, প্রায় তিন মাস ধরে কোনো খোঁজ নেই তার। ২৬ শের জানুয়ারির পর যোগাযোগ করেননি, পরিবার-বন্ধু কারো সাথেই।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন ঢাকার ফরাসি রাষ্ট্রদূত সোফিও অব্যার্টও। জানান, এরইমধ্যে বিষয়টি অবহিত করেছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে। ক্লান্তিহীন পথ চলায় আর্থার জুটিয়েছে অনেক বন্ধু। তাদেরই একজন উজবেকস্তানের জুলফি আব্দুলিনা। জানালেন কীভাবে হয়েছে তাদের বন্ধুত্ব। জুলফি বলেন, “ও রাশিয়ান ভাষা বলতে পারতো না। এখানে এলে আমি তার দোভাষি হয়ে কাজ করেছি। নিশ্চয়ই সৃষ্টিকর্তা তাকে সুস্থ রেখেছেন।”

আর্থর তুমি কোথায়, এ নামে সামাজিক মাধ্যমগুলোতে তাকে খুঁজে ফিরছে স্বজনরা। ইমেইলে যোগাযোগ করা হলে, এক নিকট আতœীয় উদগ্রীব হয়ে একটা খবর জানতে চান তার। সন্তান হারিয়েছে, নাকি বেঁচে আছে, তা এখনো নিশ্চত নন আর্থারের মা। তবে আর্থারকে পায়ে হেঁটে মিয়ানমারে না যাবার জন্য পরামর্শ দিয়েছিল ঢাকার ফরাসি দূতাবাস। এ নিয়ে এখনও কোনো মামলা না হলেও, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বলছে বিষয়টি তারাও জেনেছেন। সূত্র : চ্যানেল টোয়েন্টিফোর

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন






মন্তব্য চালু নেই