মেইন ম্যেনু

বিল গেটসের এই বাড়ি তৈরি করতে লেগেছিল সাত বছর, কী আছে সেই বাড়ির অন্দরে

বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি তিনি। এই মুহূর্তে মাইক্রোসফ্টের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ৮,১৭০ কোটি ডলার। ফোর্বসের তালিকা অনুযায়ী ১৯৯৫ সাল থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত তিনি ছিলেন বিশ্বের ধনীতম ব্যক্তিদের তালিকার এক নম্বরে। ২০০৮-এ ছিটকে গেলেও ২০০৯-এ ফের শীর্ষস্থানে ফিরে আসেন। এ বছরও প্রথম স্থান থেকে তাঁকে নামাতে পারেননি কেউ। ওয়াশিংটনের মেডিনায় লেক ওয়াশিংটনের পাশে ৬৬ হাজার স্কোয়্যার ফুটের ওপর তৈরি হয়েছে বিলাসবহুল এই বাংলো। সাত বছর ধরে ৬ কোটি ৩২ লক্ষ ডলার ব্যয়ে তৈরি হয়েছে বিল গেটসের এই ‘আস্তানা’। তবে বাড়ি তৈরির অঙ্কটা দেখতে বেশ হোমড়া চোমড়া হলেও আসলে তা নাকি গেটসের মোট সম্পত্তির মাত্র ০.১ শতাংশ! গ্যালারি থেকে জেনে নিন বিল গেটসের বাড়ি সম্বন্ধে এমনই কিছু তথ্য যা আপনার নাও জানা থাকতে পারে।

বাড়ির নাম:
‘জানাডু’ বললেই মনে পড়ে যায় ম্যানড্রেকের প্রাসাদ। এই কমিকস চরিত্র প্রকাশ্যে আসার কয়েক
বছর পর বহু চর্চিত ছবি ‘সিটিজেন কেন’-এর বিখ্যাত সেই
বাড়িটির নাম ছিল ‘জানাডু ২.০’। নিজের বাড়ির নামও ‘জানাডু ২.০’ রাখেন বিল।

বাড়ির দাম:
রিয়্যাল এস্টেট ডাটাবেস সংস্থা ‘জিলো’-র তথ্য অনুসারে বর্তমানে এই বাড়ির দাম প্রায় ১৫ কোটি ৪২ লক্ষ ডলার।
যদিও ১৯৯৮-এ এই সম্পত্তি কেনা হয়েছিল মাত্র ২০ লক্ষ ডলারে।

বাড়ির ট্যাক্স:
প্রতি বছরই এই বাড়ির জন্য লক্ষ লক্ষ ডলার কর দেন বিল গেটস। ২০০৯ সালে মোট
স্থাবর সম্পত্তির জন্য ১০,৬৩,০০০ ডলার কর দিয়েছিলেন তিনি।

আতিথেয়তা:
বিল গেটসের অতিথি আপ্যায়ন বলে কথা। চমক না থাকলে চলে! এই বাড়ির দেওয়ালে রয়েছে অত্যাধুনিক সেন্সর।
ফলে যে কেউ নিজের পছন্দ মতো ঘরের তাপমাত্রা বদলে ফেলতে পারেন।
ঘরের লাইটিং শেডও বদলানো যাবে শুধুমাত্র ছোট্ট একটি পিনের দৌলতে।

বাড়ির উপাদান:
৫০০ বছরের পুরনো বহুমূল্যবান ডগলাস ফার গাছের কাঠ দিয়ে তৈরি এই বাড়ির বেশিরভাগ অংশ।

আর্থ শেলটার্ড বাড়ি:
এই বাড়ি ‘আর্থ শেলটার্ড’ টেকনলজিতে তৈরি। অর্থাৎ আশেপাশের আবহাওয়া, তাপমাত্রার
পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে বাড়ির ভিতরের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রিত হতে পারে।

সুইমিং পুল:
জানাডু ২.০-এর ভিতরে রয়েছে ৩,৯০০ স্কোয়্যার ফুটের আলাদা একটি বাংলো। এর সামনে রয়েছে ৬০ ফুট লম্বা সুইমিং পুল।
যার প্রধান আকর্ষণ জলের তলার মিউজিক সিস্টেম।

বাথরুম:
আন্দাজ করুন তো কতগুলি বাথরুম রয়েছে গোটা বাড়িতে? সমস্ত রকম অত্যাধুনিক সুবিধাযুক্ত ২৪টি বাথরুম রয়েছে জানাডু ২.০-এ।

লোক সংখ্যা:
২,৩০০ স্কোয়্যারফুটের গেস্ট রুম রয়েছে জানাডু ২.০-তে। একসঙ্গে ২০০ জন অতিথি থাকতে পারেন এই অতিথিশালায়।

রান্নাঘর:
মোট ছয়টি রান্নাঘর রয়েছে এখানে। ২৪ ঘণ্টা যেখানে পছন্দ মতো খাবার তৈরির জন্য প্রস্তুত থাকেন একাধিক সেফ।

গ্রন্থাগার:
২,১০০ স্কোয়্যার ফুটের লাইব্রেরি রয়েছে জানাডু ২.০-তে। বেশ কিছু প্রাচীন পাণ্ডুলিপিও রয়েছে গেটসের ব্যক্তিগত সংগ্রহে।

বাড়ির নক্সা:
বোহলিন সিউইনস্কি জ্যাকসন এবং কাটলার আন্ডারসন আর্কিটেক সংস্থা যৌথ ভাবে এই বাড়ির নক্সা করেছে।

হোম থিয়েটার:
জানাডু-র নিজস্ব হোম থিয়েটারে বসতে পারেন ২০ জন। হোম থিয়েটারে রয়েছে পপকর্ন মেশিনও।

বিল গেটসের জানাডু ২.০ দেখার জন্য একবার ৩৫,০০০ ডলার খরচ করেছিলেন এক ব্যক্তি!-আনন্দবাজার






মন্তব্য চালু নেই