মেইন ম্যেনু

বিএনপির ‘স্বাধীনতার’ মিছিলে পুলিশের গুলি! (ভিডিও)

মহান স্বাধীনতা দিবসে নরসিংদী শহরের ভেলানগর এলাকায় আজ রোববার বিকেলে জেলা বিএনপির মিছিলে বাধা দিয়েছে পুলিশ। এ সময় নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। একপর্যায়ে পুলিশ বিএনপির নেতাকর্মীদের লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এই ঘটনায় কারো গুলিবিদ্ধ হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

সংঘর্ষের ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যসহ কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। পুলিশ রায়পুরা উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান খোকনসহ পাঁচজনকে আটক করেছে।

স্থানীয় বিএনপি নেতাকর্মী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও জেলা সভাপতি খায়রুল কবির খোকনের নেতৃত্বে স্বাধীনতার মিছিল বের করেন জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা। মিছিলটি শহরের চিনিশপুরে জেলা বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয় থেকে বের হয়ে ভেলানগর মোসলেম উদ্দিন স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে তাতে বাধা দেয় পুলিশ। এ নিয়ে পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের কথা কাটাকাটি হয়।

একপর্যায়ে নেতাকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ মিছিলে লাঠিপেটা শুরু করে। পরে বিএনপি নেতাকর্মীরা পুলিশের ওপর চড়াও হয়। উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া ও সংঘর্ষ বেধে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে পুলিশ পরপর কয়েকটি গুলি বর্ষণ করে। এতে তিন পুলিশ সদস্যসহ কমপক্ষে ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

পুলিশ রায়পুরা থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান খোকনসহ পাঁচজনকে আটক করেছে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

বিএপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন বলেন, পুলিশ বিনা উসকানিতে স্বাধীনতা দিবসের শান্তিপূর্ণ মিছিলে বর্বরোচিত হামলা চালিয়েছে। তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে। অথচ স্বাধীনতার এই দিনে নিরীহ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে স্বাধীনতাকে ভুলুণ্ঠিত করেছে।

বিএনপির মিছিলে বাধা দেওয়ার কারণ জানতে চাইলে নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা কোনো বক্তব্য দেননি। তিনি দাবি করেন, বিএনপি নেতাকর্মীরা আগে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে। এতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। সন্দেহজনভাবে পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই