মেইন ম্যেনু

সাতক্ষীরার খবর

বাস খাদে পড়ে একজন নিহত, আহত ১৫

সাতক্ষীরা-কালিগঞ্জ মহাসড়কের বাঁকাল এলাকায় ট্রাক সাইড দিতে গিয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে একজন নিহত ও কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। রোববার বেলা তিনটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
সাতক্ষীরা সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাসিরুদদীন জানান,সাতক্ষীরা অভিমুখী যাত্রীবাহি বাস সাতক্ষীরা জ-১১-০১১২ উল্টে পাশের পানি ভর্তি খাদে পড়ে যায়। এতে একজন নিহত ও কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়। নিহতের নাম পরিচয় জানা যায়নি। তার মরদেহ গাছে ঝুলতে দেখা যায়। আহতদের সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

পুলিশের মানবাধিকার জেন্ডার বৈষম্য ও  দায়িত্ববোধ বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ কর্মশালা: সাতক্ষীরায় পুলিশ সদস্যদের মানবাধিকার, জেন্ডার বৈষম্য সম্পর্কে সচেতনতা ও  দায়িত্ববোধ বৃদ্ধির লক্ষ্যে পাঁচ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু হয়েছে।প্রশিক্ষণ কর্মশালা রোববার সাতক্ষীরা পুলিশ লাইন্সের ইন-সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারে শুরু হওয়া এ প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মোদদাছছের হোসেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইন-সার্ভিস ট্রেনিং সেন্টারের ইনচার্জ সহকারী পুলিশ সুপার মেহেদী হাসান। উপস্থিত ছিলেন প্রশিক্ষক পুলিশ পরিদর্শক (নি.) আব্দুল লতিফ। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি কর্মশালায় অর্জিত জ্ঞান বাস্তব ক্ষেত্রে প্রয়োগের জন্য প্রশিক্ষণার্থীদের প্রতি আহবান জানান। কর্মশালায় খুলনা, বাগেরহাট ও সাতক্ষীরা জেলার ২৪ জন প্রশিক্ষণার্থী অংশগ্রহণকরছে।

অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার সময় শিশুসহ ১০ বাংলাদেশী আটক: ভালো কাজের সন্ধানে অবৈধভাবে ভারতে যাওয়ার চেষ্টাকালে সাতক্ষীরার সীমান্ত এলাকা থেকে এক শিশুসহ ১০ বাংলাদেশীকে আটক করেছে বিজিবি। রোববার ভোরে  সদর উপজেলার বৈকারী ছয়ঘরিয়া সীমান্ত এলাকা থেকে তাদেরকে আটক করা হয়। তবে বিজিবি এ সময় কোন পাচারকারীদের আটক করতে সক্ষম হয়নি।
বিজিবিআটক,বিজিবি জানায়, পাচারকারীরা ভাল কজের লোভ দেখিয়ে কক্সবাজার টেকনাফ এলাকা থেকে নিয়ে আসা ১০ বাংলাদেশিকে পাচারের উদ্দেশে সীমান্তের বেড়ি বাঁধের ওপর জড়ো করা হচ্ছে। এমন খবর পেয়ে বিজিবির টহল দলের সদস্যরা তাদেরকে আটক করলেও পাচারকারীদের আটক করতে সক্ষম হয়নি। আটকৃত ১০ বাংলাদেশী হলেন, কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার শিলবুনিয়া গ্রামের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে সাদেক হোসেন (২৫), তার স্ত্রী লায়লা বেগম(২০), ভাই মাহমুদ আলী (২৬), তার স্ত্রী আয়শা বিব্ ি(২০), একই এলাকার মৃত হামিদ আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান (২২), মৃত আমান উল্লাহর ছেলে সালামোতুল্লাহ (২১), মাহমুদ কাইয়ূমের স্ত্রী মুছা তাছরিন বেগম (৩০), আব্দুর রহিমের স্ত্রী হাছিনা বেগম (৩০), তার শিশু পুত্র মোঃ সমীর (১০) ও কন্যা ছামিরা বেগম (১৪)।  পরে বিজিবি তাদেরকে পাসপের্ট আইনে মামলা দিয়ে সাতক্ষীরা সদর থানায় সোপর্দ করে।
সাতক্ষীরা সদর থানার ওসি (তদন্ত) নাসির উদ্দীন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই