মেইন ম্যেনু

বার কাউন্সিল নির্বাচন বিষয়ে আদেশ ২৮ মে

বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নির্বাচন স্থগিত করে হাইকোর্টের দেওয়া আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে করা আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে। এ বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ২৮ মে ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্ট। ফলে আগামী ২৭ মে অনুষ্ঠিতব্য বার কাউন্সিলের নির্বাচন হচ্ছে না।

রোববার দুপুরে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন ৪ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ আদেশের জন্য এ দিন ধার্য করেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল।
আবেদনের বিরোধিতা করে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ, ব্যারিস্টার আমিরুল ইসলাম।

এর আগে বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের আদেশের ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আবেদন করেন বার কাউন্সিলের পক্ষে প্রতিষ্ঠানটির সচিব আলতাব হোসেন ও প্রার্থীদের পক্ষে আইনজীবী এজে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার বদরুদ্দোজা বাদল ও ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

গত বৃহস্পতিকার সকালে আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রনকারী প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি আবু তাহের মো. সাইফুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

একইসঙ্গে বাংলাদেশ বার কাউন্সিল সংশোধনী আইন, ২০০৩ এর ৩ নম্বর ধারাকে কেন অবৈধ এবং সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুলও জারি করা হয়। এ ছাড়া ২০১৫ সালের বার কাউন্সিলের নির্বাচনের তফসিল কেন বাতিল করা হবে না রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়।

গত রোববার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউনূস আলী আকন্দ বার কাউন্সিলের নির্বাচন স্থগিত চেয়ে ও নির্বাচনের তফসিল চ্যালেঞ্জ করে একটি রিট দায়ের করেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ২৭ মে বার কাউন্সিলের নির্বাচনের ভোটগ্রহণের দিন নির্ধারিত ছিল।






মন্তব্য চালু নেই