মেইন ম্যেনু

বার্নিকাটের রাজনৈতিক উদ্যোগকে আমলেই নিচ্ছে না আ.লীগ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা ব্লুম বার্নিকাটের বৈঠক রাজনৈতিক মহলে নতুন আলোচনার জন্ম দিলেও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এই উদ্যোগকে আমলেই নিচ্ছে না। বিএনপির সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের এ কূটনীতিকের বৈঠক রাজনৈতিক অঙ্গনে কোনও প্রভাব তৈরি করবে না বলে মনে করছে সরকারি দল। বার্নিকাটের এ বৈঠককে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা দেখছেন নেহায়েত একটি ‘রুটিন ওয়ার্ক’ হিসেবে।খবর বাংলা ট্রিবিউনের।

বিএনপির চেয়ারপারসনের সঙ্গে বৈঠকের পরে মার্শা ব্লুম বার্নিকাটের বক্তব্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে ধারাবাহিক বৈঠক করার যে ঘোষণা দিয়েছেন, সেটাকেও দেখছেন সহজভাবে। যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ। দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে এসব বৈঠক কূটনীতিকরা করতেই পারেন। তাতে কারও স্বস্তি বা কারও ভেতরে অস্বস্তি তৈরি হওয়ার মতো কোনও কারণ রয়েছে বলে মনে করে না ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতারা।

নীতি-নির্ধারকরা বলেন, যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ। খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক ও রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে বৈঠক ডেভলপমেন্ট বিষয় নিয়েই আলোচনা ছাড়া আর কিছুই নয়। এসব বৈঠকে রাজনৈতিক আলাপ-আলোচনা হতে পারে কিন্তু সমাধান হবে না।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরউল্যাহ বলেন, ‘বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের হাইকমিশনের বৈঠক মাতামাতি সৃষ্টি হয়ে যাওয়ার মতো কোনও ঘটনা নয়।’ তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে আলোচনায় বসা তাদের কাজেরই অংশ।’

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘বার্নিকাট বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের হাইকমিশন। এছাড়া তারা আমাদের দেশের উন্নয়ন সহযোগী। রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ কূটনীতিকদের ডিপ্লোম্যাসিরই একটি অংশ। তাই বার্নিকাট এ উদ্যোগ নিয়েছেন।’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান বলেন, ‘খালেদা জিয়ার সঙ্গে বার্নিকাটের বৈঠক রাজনৈতিক মহলে আলোচনা হওয়ার মতো কোনও ঘটনা নয়। এ ধরনের আলোচনা বা বৈঠক বাংলাদেশে নিযুক্ত কূটনীতিকদের কাজেরই একটি অংশ। যুক্তরাষ্ট্র যেহেতু বাংলাদেশের উন্নয়ন সহযোগী দেশ, সেহেতু দেশটির প্রতিনিধিরা আমাদের রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে বসবেন, কথা বলবেন, এটাই স্বাভাবিক।’

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘খালেদা জিয়ার সঙ্গে বার্নিকাটের বৈঠক রাজনীতিতে আলোচনা তোলার মতো কোনও ঘটনা বলে আওয়ামী লীগ মনে করে না।’ তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে এ ধরনের বৈঠক তাদের ধারাবাহিক কাজের একটি অংশ-এর বাইরে এই বৈঠক অন্য কিছু নয়।’






মন্তব্য চালু নেই