মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশের উপ-হাইকমিশনারকে ডেকে পাঠিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

ভারতীয় সারদা গ্রুপের অর্থে বাংলাদেশে মৌলবাদী তথা জামায়াত-হেফাজতকে দেওয়া হয়েছে বলে বিভিন্ন সংবাদপত্রে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর এবার ওই পাচারে তৃনমূল নেতাদের নাম আসায় বিরক্ত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর এই পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশের উপ-হাইকমিশনার আবিদা ইসলামকে ডেকে পাঠিয়েছেন মমতা। এ খবর জানিয়েছে দৈনিক হিন্দু পত্রিকা। তবে আবিদা ইসলাম এ খবর অস্বীকার করেছেন।

এদিকে বাংলাদেশে জামায়াত-হেফাজতকে আন্দোলনকে পুষ্ট করতে সারদার আমানতকারীদের অর্থ যার মাধ্যমে পাঠানো হয়েছে বলে অভিযোগ তোলা হয়েছে সেই তৃণমূল সাংসদ আহমেদ হাসান ইমরান সম্পর্কে মৌলবাদী যোগাযোগের নানা তথ্য সংবাদ মাধ্যমে উঠে আসছে। তবে ইমরান তার বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তার বিরুদ্ধে পরিকল্পিত অপপ্রচার হচ্ছে বলেও দাবি করেছেন তিনি।

প্রতিবেদনে প্রকাশ, আবিদা ইসলাম শনিবার মমতার সাথে দেখা করবেন। সংবাদটি প্রটোকল ভেঙ্গে কিভাবে পত্রিকায় প্রকাশিত হলো সে সর্ম্পকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে পারেন। এছাড়া প্রতিবেদনটি স্বাধীনভাবে তদন্ত করা হয়নি এবং শুধুমাত্র গোয়েন্দাদের মতামত-পর্যবেক্ষণের ভিত্তিতে কেন এই প্রতিবেদন তা নিয়েও প্রশ্ন করতে পারেন মমতা।

উল্লেখ্য, সংবাদ প্রকাশ নিয়ে ইমরান ইতিমধ্যে বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থনাথ সিংয়ের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন। এর আগে তৃণমূলের এই সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদের গুরুতর অভিযোগ এনেছিলেন সিদ্ধার্থনাথ। এরই পরিপ্রেক্ষিতে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৫ ও ৩১৫ নম্বর ধারায় এফআইআর দায়ের করেন ইমরান।
এসংক্রন্ত আরো খবর-

এক দিকে সারদা কেলেঙ্কারি , ওপর দিকে পশ্চিমবঙ্গে দুটি বিধানসভার ভোট
বিজেপি নেতা সিদ্ধার্থনাথের বিরুদ্ধে ইমরানের মানহানি মামলা
দেশে নাশকতা সৃষ্টিতে জামায়াতে ইসলামিকে সাহায্য করেছিল মমতার তৃণমূল!






মন্তব্য চালু নেই