মেইন ম্যেনু

বলিউডের হিট সিনেমার কিছু বিরক্তিকর রোমান্টিক দৃশ্য (দেখুন ছবিতে)

রোমান্স যেন বলিউড সিনেমার এক অপরিহার্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। নায়ক নায়িকার একে অন্যের প্রতি আকর্ষণ আর ভালোবাসা থেকেই ঘনিষ্ঠ হওয়ার দৃশ্যের উপরেই সিনেমার ব্যবসা সফলাত যেন নির্ভর করে অনেকাংশেই। তবে দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে সিনেমা যেন প্রমাণ করে দিয়েছিল কোন অন্তরঙ্গপূর্ণ দৃশ্য ছাড়াই কি করে একটি সিনেমা ব্লকবাস্টার হিট ছাড়াও এখনও আলোচনা সৃষ্টি করে আসছে। তবে সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তন আসবে এটাই স্বাভাবিক। আর তাই আজ প্রিয়.কম তার বিনোদন পাঠকের জন্য নিয়ে এলো ২০১৪ সাথে মুক্তি পাওয়া বলিউডের এমন কিছু হিট সিনেমার রোমান্টিক দৃশ্য, যা দর্শকের বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিল।

সিদ্ধার্থ মালহোত্রা আর শ্রদ্ধা কাপুরের রোমান্স
বহুমুখি প্রতিভার করণে বলিউড বরাবরই আলোচিত। তবে এই বলিউড যেন হলিউড মুভিগুলোকে দেশীয় সাদে উপস্থাপন করতে বেশী পারদর্শী। তারই প্রমাণ যেন করিয়ান সিনেমা ‘আই সো দ্যা ইভিল’ ভারতীয় সংস্করণ ‘এক ভিলেন’। পরিচালক মুহিত সুরি যে এতো দারুণ করে সিনেমাটিকে রুপালি পর্দায় দেশীয় ঢংয়ে উপস্থাপন করতে পারবেন তা অনেকেই ভাবতে পারেননি। কিন্তু পুরো সিনেমাতেই মুগ্ধতায় ভরিয়ে দিতে গিয়েই যেন একটু অতিরঞ্জিত করে ফেলেছেন। অসুস্থ আয়েশাকে একটু আনন্দ দিতে ভিলেন গুরু বাড়ির ছাদের উপর থেকে স্নো ফেলেন। আর এই স্নোকে সত্যিকারের স্নো মনে করাই দর্শকের মনে অনুভুতির সঞ্চার না করে উল্টো হাসিই পাইয়েছেন শ্রদ্ধা কাপুর।

হারমান বাওয়েজা এবং আয়েশা খান্নার রোমান্স
ঢিশকায়াও সিনেমাতে কোনরকমে হারমান বাওয়েজা নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে পারলেও সিনেমার নায়িকা আয়েশা খান্না একেবারে আগুনে জল ঢেলে দিয়েছেন। পুরো একটি রোমান্টিক সংকে একেবারেই আন রোমান্টিক বানিয়ে দিয়েছেন এই অভিনেত্রী। গানটিতে হারমান তার জাদু ছড়াতে চাইলেও নায়িকার কারণে কোনভাবেই রোমান্স যেন ফুটে উঠছিল না। গানটিতে আয়েশ কাকে একটি গিটার বাজানোর কথা থাকে কিন্তু যিনি গিটার বাজাতে পারেন না তার জন্য বেশ কষ্টসাধ্যই বৈকি। তবে হাস্যকর ব্যাপার হল, পুরো গানটিতে আয়েশা কেবল একটি কর্ডেই হাত রেখেই পুরো গান শেষ করেন।

কৃতি শ্যানন এবং টাইগার স্রফের রোমান্স
বলিউডের আর দশটা অ্যাকশনধর্মী সিনেমার মতই ছিল হিরোপান্তি। যেখানে হিরোর এক ঘুষিতে শ’খানেক ভিলেন কুপোকাত করে ফেলেন। আর সিনেমায় হিরোপান্তি দেখাতে দেখাতে হিরোইনের কথা তো বেমালুম ভুলেই গেলেন টাইগার। পুরো সিনেমাতে গান ছাড়া আর কোন রোমান্টিক দৃশ্যে দেখা যায়নি। যদিও পুরো সিনেমাতে কৃতির ফ্ল্যাট বেলির ঝলকে কুপোকাত ড্যাশিং টাইগারের অতিরঞ্জিত অভিনয় দেখেই দর্শকদের বিরক্তি লেগে যায়।

আলিয়া ভাট-ভরুন ধাওয়ানের রোমান্স
হামটি শর্মা কি দুলহানিয়া সিনেমা মুক্তি আগে ভারুন আলিয়ার প্রেমের সম্পর্কের খবর রটানোর পরই পরিচালক সিদ্ধান্ত নেন ভরুন-আলিয়ার ঘনিষ্ঠ দৃশটি সিনেমার প্রথমেই রাখার। আর তাই করা হয়। কিন্তু এখানেই বাধে যত সমস্যা। নাইট ক্লাবে জীবনের প্রমথ চুম্বন করা পুরুষের সাথে খুব তাড়াতাড়ি অন্তরঙ্গ হয়ে যায় কাভ্যিয়া। এরপর কোন সম্পর্কে জড়াতে অনিচ্ছুক হামটি যে কিনা ইতোমধ্যেই কাভ্যিয়ার ফ্রাইডে ম্যানে পরিণত হয়েছেন সে কিনা কাভ্যিয়ার বাগদত্তার চুপ থাকা সত্ত্বেও গুণ্ডাদের সাথে মারামারি করেন তখনই কিন্তু দর্শকের কাছে তখনই খাটকা লাগে আসলে কি চান ভারুন? সব কিছু মিলিয়ে প্রমথমে ভারুন আলিয়ার প্রেমের গভিরতা বোঝাতে গিয়েই গোঁজামিল পাকিয়ে ফেলেন পরিচালক!

ইমরান হাশমি এবং হোস্টেলের মেয়ের রোমান্স
এই ঘরানার সিনেমাগুলতে সাধারণত টুইস্টের মাধ্যমে দর্শককে ধরে রাখতে সাহায্য করে কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্যি যে ইমরান হাশমির উংলি সিনেমা তা করতে ব্যর্থ হয়। কেবল টুইস্টেই নয় এই সিনেমাও রোমান্টিক দৃশ্যের গভিরতা রক্ষাতেও ব্যর্থ ছিল। একটি দৃশ্যে দেখানো হয় গার্লস হোস্টেল হঠাৎ-ই একটি বোমের আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আর এই সুযোগে ইমরান হাশমি একটি মেয়ের খুব কাছে চলে আসেন আর মেয়েটিকে একান্তে পেতেই বোমের আতঙ্ক তিনি ছড়িয়ে দেন বলে জানান।

সূত্র: মিড ডে



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই