মেইন ম্যেনু

বলিউডের সেরা পাঁচ অন্তরঙ্গ দৃশ্য (ভিডিও)

এক সময় ছিল নায়ক-নায়িকার ঘনিষ্ট দৃশ্য মানেই দুটো ফুল কাছাকাছি। আর তার পরের দৃশ্যেই দেখা যেত নায়িকা সন্তানসম্ভবা। সেই দিন গেছে চলে। এখন সিনেমার পাত্র-পাত্রীরা একে অন্যকে জড়িয়ে ধরেন হরহামেশাই। শুধু কি তাই তারা ঠোঁটে ঠোঁট রাখেন। প্রেমের পদ্যের মানে এখন শরীরী আবেদন। অনেক সিনেমাতেই তো বিছানার দৃশ্যও দেখা যায়। খোলামেলা হতেও যেমন কোনো উপলক্ষ লাগে না নায়িকাদের। তেমনি অন্তরঙ্গ দৃশ্যে অভিনয় করতেও তারা আর আপত্তি করেন। হালের সিনেমাগুলো যেন অন্তরঙ্গ দৃশ্য ছাড়া অসম্পূর্ণ। এখন সিনেমাগুলো যেনো সাবালক হয়েছে। আর বলিউডের এমন দৃশ্য এখন যেন দুধভাত। সেখানে বিছানায় আলোড়ন তোলা দৃশ্যে নায়িকারাও যেমন ইতস্তত করেন না, তেমন পরিচালকও প্রেম মানেই আজকাল চরম ঘনিষ্ঠতা ছাড়া কথাই বলছেন না৷ এতে অন্তত ছবির ব্যবসায়িক দিকটা ঠিক রাখা যায় বলে মনে করছেন তারা৷ সে দিকটি বিবেচনায় রেখে গত দুবছরের সিনেমাগুলো থেকে দারুণ আকর্ষনিয় পাঁচটি যৌনদৃশ্য নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে এই রচনায়৷

১. রাগিণী এমএমএস টু : তিনি ছিলেন পর্নো তারকা। আর এখন রীতিমতো বলিউডের নায়িকা। সানি লিওনের কথাই যে বলছি তা অনেকেই বুঝে ফেলেছেন নিশ্চয়। এ পর্নোস্টার যখন থেকে নায়িকা হয়েছেন তখন থেকেই তৈরি হয়েছে নানান বিতর্ক৷ তার প্রথম ছবি ‘জিসম টু’তে যথেষ্ট পরিমাণে খোলামেলা হওয়া সত্ত্বেও অভিনয় না জানার কারণে নিন্দামন্দও শুনতে হয়েছিল৷ তবে ক্রমশ তিনি সে দোষ কাটিয়ে উঠেছেন৷ পরের ছবি ‘রাগিণী এমএমএস টু’ ছবিতে অভিনয় ও যৌনদৃশ্য দুটো ব্যাপারেই কাঁপিয়ে দিলেন৷ বিশেষ করে যৌন আবেদনমূলক দৃশ্যগুলোতে তিনি তো একেবারে যথাযথ অভিনয় করলেন৷ তার হাবেভাবে প্রয়োজন অনুসারে যৌন কামনা মারাত্মকভাবে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

দেখুন : রাগিনী এমএমএস টু এর গানে সানি লিওন

২. বিএ পাস : এই ছবির যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ কাহিনি যাকে ঘিরে তিনি হচ্ছেন শিল্পা শুক্লা৷ অজয় বহেল পরিচালিত ‘বিএপাস’ ছবিতে তার দারুণ সাহসী যৌনদৃশ্য দেখার জন্য দর্শকরা হলমুখী হয়েছিলেন৷ এর আগে শিল্পা খুব বেশি পরিচিত না হলেও ‘চাক দে ইন্ডিয়া’ তে কাজ করে প্রশংসা পেয়েছিলেন৷ কিন্তু তারপরই যে এ রকম একটা সাহসী পদক্ষেপ তিনি নিয়ে বসবেন তা অবশ্য কেউ কল্পনাও করেনি৷ ছবিতে তিনি শিক্ষিকার বেশে এক চরম যৌন আকাঙ্খাপ্রবণ নারী৷ বিভিন্ন পুরুষকে সে তার আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ববলে কাছে টেনে তার সঙ্গে মিলিত হস৷ বিনিময়ে সেই পুরুষদের টাকা মেটান তিনি৷ অর্থাৎ পুরুষ যৌনকর্মীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ হয়েছে শুল্কা।

দেখুন : বিএ পাস সিনেমার ট্রেইলার

৩. হেট স্টোরি : বছর দুয়েক আগের ছবি ‘হেট স্টোরি’৷ এর মধ্যে একাধিক সাহসী ছবি বলিউডে হয়ে গিয়েছে৷ কিন্তু এই ছবিতে পাওলি দামের এক সে বড় কর এক সাহসী দৃশ্য সকলকে আজও চমকে দেয়৷ এটি বলিউডে পাওলির প্রথম কাজ৷ সেখানেই তিনি চিত্রনাট্যের নাটকীয়তায় ও ঘটনাচক্রে এক বারবণিতা হয়ে যান৷ এবং তারপর সবাইকে নিজের শরীরী মহিমায় মুগ্ধ করতে থাকেন৷ সবাই সেই ফাঁদে পা দেয়৷ কিন্তু সে পা দিক৷ কিন্তু পাওলির আগে বলিউডেরই কোনও মেয়ে যে সাহস দেখায়নি তিনি বাঙালি হয়ে সেই অসাধারণ সাহসিকতার পরিচয়টা দিয়েই ফেললেন৷ অনেকগুলি দৃশ্যে তাকে যৌন সঙ্গমে তো দেখা যায়ই, তাছাড়াও একটি দৃশ্যে পুরো পিঠ খোলা রেখে পর্দায় হাজির হন৷

দেখুন : হেট স্টোরি ছবিতে পাওলি দাম

৪. শুটআউট অ্যাট ওয়াডলা : এই ছবিতে কঙ্গনা রানাওয়াত ও জন আব্রাহামের অন্তরঙ্গ দৃশ্যের কথা সবাই মনে রেখেছেন৷এর আগে কঙ্গনা রিভিলিং পোশাক এবং অভিনয় দক্ষতায় স্বাচ্ছন্দ্য দেখালেও তার এই সাবলীল যৌনদৃশ্যে অভিনয়ের অভ্যেসটা অনেকেই জানতেন না৷এখানে একটি দৃশ্যে জন আব্রাহাম তার ঠোঁট কামড়ে ধরেন, যা দেখে অনেকেই বেশ যৌন আবেদনে কাতর হয়ে উঠেছিলেন৷ আর জনের মতো সুঠাম চেহারা অভিনেতার সঙ্গে কঙ্গনার মতো সুন্দরী মেয়ের শয্যাদৃশ্য সকলেই বেশ উপভোগ করেছিলেন৷

দেখুন : শুটআউট অ্যাট ওয়াডলা সিনেমার ইয়ে জুনুন গানে কঙ্গনা ও জন

৫. ডার্টি পিকচার : ছবিটির বিষয়েই বিতর্কিত দৃশ্যের শেষ ছিল না৷ ভারতের দক্ষিণী অভিনেত্রী সিল্ক স্মিতার বায়োপিকে যৌনতা থাকবে না তা তো সম্ভব নয়৷ ছবিতে নাসিরুদ্দিনের সঙ্গে বিদ্যার বেশ কিছু দৃশ্য নিয়ে ভারতীয় সেন্সর বোর্ড প্রচুর আপত্তি তোলে৷ তারপর সেটির ওপর কাঁচিও চলে৷ টিভিতে রাত ১১টার মধ্যে শো টাইমে সেন্সরড ভার্সান এবং রাত ১১টার পর আনসেন্সরড ভার্সানটি দেখানো হয়৷ আর বিদ্যার সাহস নিয়ে তো ভালো মন্দ দুধরনের সমালোচনাই চলতে থাকে৷

ভিডিও : ডার্টি পিকচার-এর গান ও লা লা






মন্তব্য চালু নেই