মেইন ম্যেনু

বজলুর রহমান স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টে চন্দনপুর সেমিফাইনালে

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ৪র্থ বজলুর রহমান স্মৃতি ফুটবল টুর্নামেন্টের ১ম রাউন্ডের ৪র্থ ও শেষ খেলায় কলারোয়ার চন্দনপুর বলাকা সংঘ ১-০ গোলে শ্যামনগর ঈশ্বরীপুর শেখ এন্টারপ্রাইজকে পরাজিত করে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করেছে। মঙ্গলবার বিকেলে কলারোয়া ফুটবল মাঠে আয়োজিত ওই খেলার প্রথমার্ধের ২২মিনিটে চন্দনপুরের ৭নং জার্সি পরিহিত জাহিদ বিজয় সূচক একমাত্র গোলটি করেন। মাঠের চারিধারে বিপুল সংখ্যক দর্শকের উপস্থিতি প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ খেলাকে আরো প্রাণচাঞ্চল করে তোলে। আগামী ২১অক্টোবর মঙ্গলবার ২য় সেমিফাইনালে চন্দনপুর বলাকা সংঘ মুখোমুখি হবে অপর সেমিফাইনালিস্ট কলারোয়া ফুটবল একাডেমির। খেলাটি পরিচালনা করেন মাসউদ পারভেজ মিলন, ফারুক হোসেন স্বপন, মোশারফ হোসেন ও ৪র্থ রেফারী আলহাজ্ব আ.রহিম বাবু। মঞ্চে উপস্থিত থেকে খেলা উপভোগ করেন উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সা.সম্পাদক জাহিদুর রহমান খাঁন চৌধুরী, কপাই সা.সম্পাদক এড.শেখ কামাল রেজা, অধ্যক্ষ শহীদুল আলম, প্রধান শিক্ষক আ.রব, আজহারুল ইসলাম, হরিসাধন ঘোষ, কপাই সহ.সভাপতি শেখ শহিদুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক বদরুজ্জামান বিপ্লব, ফ্রেন্ডস স্পোটিং ক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক রমজান আহম্মেদ, ক্রীড়া সম্পাদক রেজাউল করিম লাভলু, সমাজসেবক কাজী আ.ওহাব, কলারোয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক আরিফ মাহমুদ, প্রভাষক জামিল আক্তার, আ’লীগ নেতা শহীদুল ইসলাম, সাবেক ফুটবলার দিলীপ ঘোষ, শিক্ষক সালাউদ্দীন, সিরাজুল ইসলাম, আ.গফফার, চন্দনপুর বলাকা সংঘের কর্মকর্তা আ.জব্বার, মাস্টার ইদ্রিস আলী, শফিকুল ইসলাম প্রমুখ। এমআর ফাউন্ডেশন, কলারোয়া পাবলিক ইন্সটিটিউট ও উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার যৌথ ব্যবস্থাপনায় এ আসরের অর্থায়ন করছেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মিজানুর রহমান। ধারাভাষ্যে ছিলেন প্রভাষক রফিকুল ইসলাম, মাস্টার শেখ শাহাজাহান আলী শাহীন ও মীর রফিকুল ইসলাম। ১ম সেমিফাইনাল আগামী ১৮অক্টোবর শনিবার বিকেলে একই মাঠে ৮দলীয় নকআউট এ টুর্নামেন্টে পরষ্পর মুখোমুখি হবে মাধবকাটি পঞ্চমগ্রাম যুব সংঘ ও শার্শা এ্যাথলেটিকস ক্লাব, যশোর।

বেত্রবতী হাইস্কুল পরিদর্শনে অডিট এন্ড একাউন্টস অফিসার:
সাতক্ষীরার কলারোয়া বেত্রবতী হাইস্কুল পরিদর্শন করেছেন ফরেন এইডেড প্রজেক্টস অডিট ডাইরেক্টরেট’র অডিট এন্ড একাউন্টস অফিসার মো. আবুল হোসেন। সোমবার দুপুরের দিকে তিনি বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়ে সেকায়েপ প্রকল্প’র বিভিন্ন কর্মসূচির বিষয়ে খোঁজ-খবর নেন ও শেণিকক্ষ ঘুরে দেখেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল হামিদ, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সাংবাদিক রাশেদুল হাসান কামরুলসহ শিক্ষকবৃন্দ। এসময় তিনি ছাত্র-ছাত্রীর উপস্থিতিতে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং অবকাঠামো নির্মানের আশ্বাস দেন।






মন্তব্য চালু নেই