মেইন ম্যেনু

ফাইল নিষ্পত্তিতে চালু হচ্ছে ই-সার্ভিস

সরকারের সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ এখন থেকে ই-সার্ভিসের আওতায় আসছে। সরকারি কাজে গতি বাড়াতে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে কাগজবিহীন ফাইল নিষ্পত্তির এ ব্যবস্থা চালু করছে সরকার।

শনিবার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের করবি হলে ই-সার্ভিস বাস্তবায়ন বিষয়ক কর্মশালায় এ তথ্য দেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক।

বিকেলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মোঃ তৌহিদুল ইসলাম জানান, সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের কর্মকর্তারা তাদের সিদ্ধান্ত জানাবেন ই-সার্ভিসের মাধ্যমে। দেশের বাইরে থাকলেও সিদ্ধান্ত জানাতে দেরি হবে না। তথ্য-প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে কাগজবিহীন এ ব্যবস্থা চালু করছে সরকার।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী বলেন, তথ্য-প্রযুক্তি এখন এদেশের উন্নয়নের স্লোগানে পরিণত হয়েছে। তথ্য-প্রযুক্তিনির্ভর ও উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার ভিত্তি প্রস্তুত হয়েছে। জনগণ এখন ই-সার্ভিস গ্রহণ করতে মানসিকভাবে প্রস্তুত হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী নতুন প্রযুক্তির সঙ্গে খাপ খাইয়ে নিতে নিজেদেরকে বদলানোর পরামর্শ দেন। দক্ষতার সঙ্গে সরকারি সেবা প্রাপ্তির প্রক্রিয়াকে সহজতর করে প্রযুক্তির সর্বোচ্চ ব্যবহারের মাধ্যমে জনগণের দোরগোড়ায় অতি অল্প সময়ে তা পৌঁছে দিতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী স্বচ্ছ, দক্ষ ও নিরপেক্ষ প্রশাসন গড়ে তুলতে সিনিয়র সচিব ও সচিবদের সহযোগিতা ও পরামর্শ চান।

কর্মশালায় উল্লেখ করা হয়, খুব শিগগিরই সব মন্ত্রণালয়ে ই-ফাইলিং চালু হবে। এক্ষেত্রে সিনিয়র সচিব ও সচিবদেরকে সব ধরনের প্রস্তুতি নেওয়ার আহবান জানান প্রতিমন্ত্রী। ই-ফাইলিং এর ক্ষেত্রে প্রথমে সাধারণ ফাইলগুলো এবং ক্রমান্বয়ে সব ফাইল নিষ্পত্তি করার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের করবি হলে মন্ত্রণালয়গুলোতে ই-সার্ভিস বাস্তবায়ন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয় সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সিনিয়র সচিব ও সচিবদের অংশগ্রহণে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূঁঞা।






মন্তব্য চালু নেই