মেইন ম্যেনু

প্রথম ডেটিংয়ে যে ৬টি বিষয় এড়িয়ে চলবেন

আপনি স্বীকার করুন আর না-ই করুন আমরা মানুষেরা প্রেম-ভালোবাসার সম্পর্কের ক্ষেত্রে খুবই খুঁতখুঁতে স্বভাবের হয়ে থাকি। এ ক্ষেত্রে আমরা যার সঙ্গে সম্পর্কে জড়াতে চাই তার চেহারা-সুরত দেখতে কেমন তা থেকে শুরু করে সে কীভাবে খায়, এমনকি তার দাঁতগুলো দেখতে কেমন তা নিয়েও পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচার-বিশ্লেষণ করি।

আর প্রথম ডেটিংয়ে কদর্য নীরবতা বা ঘর্মাক্ত হাতের তালুর জন্য সঙ্গী বা সঙ্গীনিকে ক্ষমা করে দিতে পারলেও ছয়টি বিষয়ে আপনাকে অবশ্যই সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

আগের প্রেমিক বা প্রেমিকার ব্যাপারে কথা বলা : প্রথম ডেটিং হল পরস্পরকে জানা এবং নতুন সঙ্গী বা সঙ্গীনির সঙ্গে প্রেমের রসায়নটা ঠিকঠাক মতো হবে কিনা তা বুঝার জন্য। কিন্তু পুরোনো প্রেমিক বা প্রেমিকার প্রসঙ্গ টেনে সে পরিবেশটাকে নষ্ট করে দিবেন না। কারণ এতে আপনার সঙ্গী বা সঙ্গীনি মনে করতে পারেন আপনি আপনার পুরোনো সম্পর্ক থেকে এখনও মানসিকভাবে পুরোপুরি বেরিয়ে আসতে পারেননি। সূতরাং আপনাকে যদি আপনার পুরোনো প্রেমিক বা প্রেমিকা সম্পর্কে জিজ্ঞেস করা হয় তার উত্তর খুব সংক্ষেপেই শেষ করুন। এ ক্ষেত্রে অপ্রয়োজনীয় বিষয়ের অবতারনা করবেন না। কারণ এতে আপনার সঙ্গী বা সঙ্গীনি বিরক্ত হতে পারেন।

ডেটিং স্থলে পৌঁছতে দেরি করা : আপনি যদি নারী হন তাহলে ডেটিং স্থলে পৌঁছতে একটু দেরি করে যাওয়াটা কোনও সমস্যা নয়। কারণ নারীরা একটু দেরি করে যাবে এটাই চলতি ফ্যাশন। কিন্তু আপনি যদি হন প্রেমিক পুরুষ তাহলে আপনার জন্য দেরি করাটা একদমই ঠিক হবে না। পুরুষ হলে আপনাকে অবশ্যই সময়মতো ডেটিং স্থলে পৌঁছাতে হবে।

আর পোশাক-আশাকের ব্যাপারেও আপনাকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। কী ধরনের পোশাক পরে প্রথম ডেটিংয়ে যাবেন এ ব্যাপারে যদি সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগেন তাহলে স্মার্ট ক্যাজুয়াল পোশাকই হতে পারে এর সমাধান। জেনে রাখুন স্মার্ট ক্যাজুয়াল পোশাক পরলে পোশাক সংক্রান্ত সব সমস্যাই আপনি উতরে যেতে পারবেন আর এতে সব কিছুই আরও সহজ হয়ে আসবে।

প্রথম ডেটিংয়ে আরেকটি বিষয়ে খুবই সতর্ক থাকতে হবে। শরীর থেকে যেন কোনও দুর্গন্ধ বের না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। প্রথম ডেটিংয়েই শরীর থেকে দুর্গন্ধ বের হতে দেখলে আপনার সঙ্গী বা সঙ্গীনির মধ্যে আপনার সম্পর্কে খুবই বাজে ধারণা জন্মাবে। আর শরীরের গন্ধের সঙ্গে স্মৃতির বিষয়টিও জড়িত। এ সমস্যা থেকে রেহাই পেতে আপনি চমৎকার কোনও সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন।

খুব বেশি পান করা : ডেটিংয়ের স্থান যদি হয় কোনও বার আর আপনি একাই শুধু মদপান করে যেতে থাকেন সেটা হবে খুবই বাজে কাজ। আর আপনারা দুজনই যদি মদ পানে লিপ্ত হন তাহলে মাঝে-মধ্যেই বিরতি দিন। প্রথম ডেটিংয়ের স্নায়বিক চাপ কমাতে মদ পান করা একটা ভালো আইডিয়া। তবে অতিরিক্ত পান করলে তা আপনার জন্য শুধু বিড়ম্বনাই ডেকে আনবে। আর বিড়ম্বনাপূর্ণ প্রথম ডেটিংয়ের স্মৃতি খুব বেশিদিন স্থায়ী হয় না।

ঔদ্ধত্য : কেউ যদি আপনার সঙ্গে সে কতো ভালো চাকরি করে এবং তার কয়টি গাড়ি আছে শুধু এসব ব্যাপারেই বকবক করতে থাকে তাহলে আপনার কাছে কেমন লাগবে? সাধারণত কেউই ধৃষ্টতা ও আত্মম্ভরীতাপূর্ণ সঙ্গী বা সঙ্গীনি পছন্দ করেন না। সূতরাং প্রথম ডেটিংয়েই নিজেকে অপরের কাছে খুব বেশি বড় করে দেখাতে যাবেন না। আর পুরুষদের জন্য প্রথম ডেটিংয়ে বেশি কথা বলার চেয়ে বরং চুপ করে বেশি শোনাটাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

মোবাইল ফোন নিয়ে ব্যস্ত থাকা : প্রথম ডেটিংয়ে মোবাইল ফোন নিয়ে ব্যস্ততা পুরোপুরি পরিহার করুন। ডেটিংয়ে গিয়ে যদি আপনি মোবাইলে বেশি বেশি কথা বলেন বা কাউকে টেক্সট ম্যাসেজ পাঠাতেই ব্যস্ত থাকেন তাহলে তা আপনার সঙ্গী বা সঙ্গীনির জন্য হবে খুবই বাজে অভিজ্ঞতা। এতে আপনার সঙ্গী বা সঙ্গীনি মনে করতে পারেন যে ডেটিংয়ে আপনার পুরোপুরি মনোযোগ নেই। আর আপনি ডেটিংয়ের চেয়ে বরং অন্য কোনও কিছুতেই বেশি আগ্রহী।

খাবার টেবিলে অসংযত আচরণ করা : মুখভর্তি খাবার নিয়েই কথা বলা, ছুরি বা চামচ পেন্সিলের মতো করে ধরে থাকা আর বিল শেয়ার করতে গিয়ে গোলমাল পাকালে সেখানেই মাটি হয়ে যাবে আপনার প্রথম ডেটিং। এমনকি এর ফলে একই ব্যাক্তির সঙ্গে দ্বিতীয় ডেটিংয়ের কোনও সুযোগও আর আসবে না।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই