মেইন ম্যেনু

প্রতি ইঞ্চি জমি কাজে লাগাতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘শষ্য উৎপাদনে দেশের প্রতি ইঞ্চি জমি কাজে লাগাতে হবে।’

রোববার কৃষি মন্ত্রণালয় পরিদর্শনকালে উপস্থিত কর্মকর্তা ও সংশ্লিষ্টদের উদ্দেশে তিনি একথা বলেন।

এ সময় গবেষণার মাধ্যমে লবণাক্ততা, জলমগ্নতা এবং প্রতিকূল সহিষ্ণু উচ্চ ফলনশীল জাতের ধানের জাত উদ্ভাবনের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা ধান চাষকে দক্ষিণাঞ্চলে নিয়ে যেতে চাই। কারণ বরিশালকে শষ্যভাণ্ডার বলা হতো। এ ভাণ্ডার গড়ে তোলার লক্ষ্যে পরিকল্পনাও নেয়া হয়েছে।’

কৃষির ওপর সরকার বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কৃষি ছাড়া শিল্প চলে না। বাংলাদেশ কৃষি প্রধান দেশ। এ দেশের চালিকা শক্তিও কৃষি। যদিও আগে শিল্পকে বেশি গুরুত্ব দেয়া হতো।’

তিনি বলেন, ‘পৃথিবীর অনেক দেশে একটি গাছ লাগাতে গিয়ে অনেক টাকা খরচ হয়। কিন্তু আমাদের দেশের মাটিতে একটি বীজ পড়লে আপনা-আপনি গাছ হয়ে যায়। তাই আমাদের দেশের মানুষ কীভাবে না খেয়ে থাকে?’

কৃষকের ছেলেরা লেখা-পড়া শিখে মাঠে যেতে চায় না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এ কাজে তাদের অনীহা। এটা দূর করতে হবে। কৃষি শিক্ষাকে পাঠ্যক্রমে এমনভাবে যুক্ত করতে হবে যাতে শিক্ষার্থীরা কৃষি কাজে উৎসাহিত হয়। তারা যেন বুঝতে পারে এটি গুরুত্বপূর্ণ ও পবিত্র কাজ।’

কৃষিকে আরো যান্ত্রিকীকরণ করলে শিক্ষিতরাও এ সেক্টরে আগ্রহী হবে বলে মন্তব্য করেন শেখ হাসিনা।

এছাড়া গম, ভুট্টা, ডালজাতীয় শষ্যসহ যেসব ফসলে কম সেচ লাগে সেগুলো উৎপাদনের কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই