মেইন ম্যেনু

প্রতারণার দায়ে রবিকে ফের জরিমানা

গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণার দায়ে আবারও জরিমানা গুনতে হচ্ছে দেশের অন্যতম বেসরকারি মোবাইল অপারেটর কোম্পানি রবিকে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে শুনানি শেষে কোম্পানিটিকে জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর এ জরিমানা করে।

অধিদফতরের সহকারী পরিচালক মো. আব্দুল জব্বার মন্ডল বিয়ষটি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, ইন্টারনেট প্যাকেজ কম দিয়ে গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণা করায় রবিকে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানার ২৫ শতাংশ অর্থাৎ ৩ হাজার টাকা অভিযোগকারীকে দেয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, রবির গ্রাহক সিলেটের জিন্দাবাজার এলাকার বাসিন্দা মো. জাকারিয়া খানকে গত ১১ এপ্রিল ইন্টারনেট অফারের একটি মেসেজ দেয়া হয়। সেখানে লেখা ছিল- ২৭ টাকা রিচার্জে ৪০০ মেগাবাইট (এমবি) ইন্টারনেট দেয়া হবে, যার মেয়াদ হবে ৭ দিন।

এই গ্রাহক সেবাটি পাওয়ার জন্য ওইদিনই (১১ এপ্রিল) তার রবি নম্বরে ২৭ টাকা রিচার্জ করেন। কিন্তু তিনি পান ৩০০ এমবি ইন্টারনেট। পরে বিষয়টি নিয়ে ভোক্তা অধিদফতরে অভিযোগ করেন জাকারিয়া খান।

অধিদফতর অভিযোগ আমলে নিয়ে গত ২৬ এপ্রিল বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য শুনানির দিন ধার্য করে। ওইদিন অভিযোগকারী উপস্থিত না থাকলেও রবির পক্ষ থেকে কাস্টমার এক্সপেরিয়েন্স মার্কেট অপারেশন ম্যানেজার আরশাদ মাহমুদ উপস্থিত হন।

পরে সময় চেয়ে আবেদন করেন তিনি। তার আবেদন মঞ্জুর করে পরবর্তী শুনানির জন্য ৪ মে নির্ধারণ করে অধিদফতর।

এদিন শুনানি শেষে কোম্পানিটিকে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তবে এর আগে প্রথম শুনানির দিন সময় চেয়ে আবেদন করার পর অভিযোগকারী গ্রাহক জাকারিয়াকে কম দেয়া ১০০ এমবি ইন্টারনেট ফেরত দেয় রবি।

আব্দুল জব্বার মন্ডল বলেন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারা অনুযায়ী রবিকে জরিমানা করা হয়েছে।

এর আগে গ্রাহকের সঙ্গে প্রতারণার দায়ে সম্প্রতি রবি’কে ৪ লাখ ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। যদিও জরিমানার ওই অর্থ জমা দেয়ার বিষয়ে তালবাহনা করছে কোম্পানিটি।






মন্তব্য চালু নেই