মেইন ম্যেনু

পুরুষের জন্য বিয়ের পর কিছু চরম সত্য

বিয়ের আগে সবার কাছেই বিয়ে হল দিল্লিকা লাড্ডু। বিয়ের পর কারো কাছে তা মধুর আর কারো জন্য তিক্ত। আর তাই বেশিরভাগ পুরুষই বিয়ের জন্য মুখিয়ে থাকলেও কারো কারো কাছে তা রীতিমত আতঙ্কের। অবশ্য আতঙ্কিত হবার কারণও আছে। কেননা শুধু বিয়ের পরই পুরুষেরা জানতে পারেন এমন কিছু সত্য, যেগুলো বিয়ের আগে তেমন একটা বোঝা যায় না। এইসব সত্যের কিছু কিছু আসলে বাস্তব জীবনের জন্য ভালো, তবে বেশিরভাগই এতদিন স্বাধীন জীবন কাটানো পুরুষদের জন্য কষ্টকর। আর তাই যারা বিয়ে করতে চলেছেন তারা এখনি জেনে নিন বিয়ে পরবর্তী কিছু সত্য।

১) স্ত্রীর রান্নার স্বাদ মায়ের রান্নার মত আশা করবেন না, তার সামনে মায়ের রান্নার সুনাম কিংবা রান্নার দুর্নাম করলে কেবল ঝগড়াই বাধবে। অন্যদিকে রান্নার প্রশংসা করে স্ত্রীকে খুশি রাখতে পারবেন দিনভর!

২) বিয়ে করেছেন তো আড্ডা-বাজির দিন এবার ফুরাল। সংসারে শান্তি চাইলে এ কাজটি মোটেও করবেন না। স্ত্রীর মাঝে নিজের মায়ের ছায়া মোটেও আশা করাটা বড় ধরণের বোকামি। কেননা প্রতিটি মানুষই সতন্ত্র আর স্ত্রীর মধ্যে তার মায়ের ছায়া থাকতে পারে আপনার মায়ের নয়। বরং স্বামীর মায়ের সাথে নিজের তুলনা স্ত্রীদের মারাত্মক ক্ষেপিয়ে তোলে।

৩) সংসার হচ্ছে অনেক দায়িত্ব, ধৈর্য, সন্তান, ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা ইত্যাদি আরও অনেক কিছু। এটা শুধু আমি-তুমি নয়। শ্বশুরবাড়ির আত্মীয়-স্বজন আসলে খুশি না হলেও ভীষণ খুশির ভান করতে হবে। কারণ এটা স্ত্রীকে খুশি করে।

৪) বিয়ের আগে যৌন জীবন নিয়ে যতটা আগ্রহ থাকে, সেটা অনেকটাই স্তিমিত হয়ে আসে। বেশিরভাগ পুরুষই অনুভব করেন যে যৌনতা বিষয়টা আসলে প্রতিদিন ভালো নাও লাগতে পারে।

৫) ঝগড়া করলে সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায়? প্রেমের ক্ষেত্রে ঝগড়া পুরুষের অপছন্দ হলেও বিয়ের পর তারা অনুভব করতে পারেন যে মাঝে মাঝে মন খুলে ঝগড়া করে নিলে মন হালকা হয়ে আসে, দাম্পত্যে স্বস্তি ফিরে আসে।

৬) নারীরা কেবল নিজের স্বামীর জীবনে অন্য নারীকে নন, ইলেকট্রনিক গেজেটকেও সহ্য করতে পারেন না। টেলিভিশন, কম্পিউটার, স্মার্ট ফোন ইত্যাদি যে কোন পণ্যের প্রতি স্বামীর আসক্তি স্ত্রীর দুচোখের বিষ।

৭) সন্তান নিয়ে সুখে শান্তিতে জীবন কাটাবার স্বপ্ন সকল পুরুষেরই থাকে। তবে সন্তান পালনের ও তাকে যোগ্য মানুষ করে তোলার কাজটি যে মোটেও সহজ নয়, সেটা পুরুষ অনুভব করেন কেবল বিয়ে ও সন্তান হবার পর।






মন্তব্য চালু নেই