মেইন ম্যেনু

পিএসপি পরীক্ষার্থীরাও পাবে জাতীয় পরিচয়পত্র

প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার্থীদের (পিএসপি) এবার জাতীয় পরিচয়পত্র (ন্যাশনাল আইডি কার্ড-এনআইডি) দেয়ার কথা ভাবছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রাথমিকভাবে ১১ থেকে ১৭ বছর বসয়ী বাংলাদেশি নাগরিকদের নিবন্ধন করে পরিচয়পত্র দেয়া হবে। পর্যায়ক্রমে আরো কম বসয়ীদের নিবন্ধন করার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির। এদের বয়স ১৮ বছর পূর্ণ হলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হবে।

বোরবার জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সুলতানুজ্জামান মো. সালেহ উদ্দিন এ সংক্রান্ত একটি কার্যপত্র কমিশন বৈঠকে উত্থাপন করেন। পরে কমিশন তা পর্যালোচনা করে। তবে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। আগামী বৈঠকে এ নিয়ে আবার আলোচনা হবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন আইন (সংশোধন) ২০১৩ অনুযায়ী, নির্বাচন কমিশন কম বসয়ী নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার উদ্যোগ নেয়। ওই ধারায় বলা হয়েছে, নির্বাচন কমিশন ভোটার ছাড়াও অন্যান্য নাগরিককে জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদান করতে পারবেন। এছাড়া জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন আইন – ২০১৪ এর বিধি-৪ অনুযায়ী ভোটার হওয়ার যোগ্য নয় এমন নাগরিককে পরিচয় নিবন্ধন ও জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদান করার বিধান রয়েছে।

উত্থাপিত কার্যপত্র থেকে জানা যায়, প্রথম পর্যায়ে প্রাথমিকভাবে যাদের বয়স সর্বনিম্ন ১১ বছর পূর্ণ হয়েছে তাদের থেকে নিবন্ধন শুরু হবে। যেহেতু প্রাথমিক শিক্ষা বাধ্যতামূলক সেহেতু এ বসয়ী নাগরিকদের পরিচয় নিবন্ধন শুরু করলে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষার সনদ অনুযায়ী একটি সঠিক ও নির্ভরযোগ্য নিবন্ধন করা সম্ভব হবে। তবে প্রাথমিক পর্যায়ের কার্যক্রম শেষে পরবর্তীতে আরো কম বসয়ীদের নিবন্ধন করা হবে বলেও কার্যপত্রে উল্লেখ করা হয়।

কার্যপত্রে বলা হয়, নিবন্ধন কাজ করার জন্য ভোটার তালিকা হালনাগাদের মতো বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা যেতে পারে। অথবা  নিজ নিজ স্কুলের শিক্ষকদের তথ্য সংগ্রহকারী হিসেবে নিয়োগ দিয়ে ইউনিয়ন পর্যায় বুথ স্থাপন করে নিবন্ধন করা যেতে পারে। এতে নতুন করে কিছু যন্ত্রপাতী ক্রয় ও সফটওয়ার আপডেট করতে হবে।

এছাড়াও কমিশন হতে ঘোষণা দিয়ে এবং বিভিন্ন মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়ে নাগরিকদেরকে উপজেলা ও থানা নির্বাচন অফিসে আসার জন্য বলা যেতে পারে। এতে নতুন করে কিছু যন্ত্রপাতি ক্রয় করতে না হলেও সফটওয়ার আপডেট করতে হবে।

ইসি কর্মকর্তা বলছে, সরকারি-বেসকারিসহ বিভিন্ন দাপ্তরিক কাজসহ পাসপোর্ট, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট, টিন নম্বর পেতে জাতীয় পরিচয়পত্র চাওয়া হচ্ছে। এর ফলে বিভিন্ন সময় নানা জটিলতার সম্মুখীন হচ্ছে মানুষ। সব বসয়ী নাগরিকদের  জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া হয়ে হলে জনগণের ভোগান্তি অনেক কম হবে বলে মনে করেন তারা।

এ বিষয়ে ইসির এক উপ-সচিব বলেন, ‘প্রাথমিকভাবে প্রথমিক সমাপনী পরীক্ষার্থী (পিএসপি) অথবা ১১ বছর বসয়ী নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার ব্যাপারে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগ কমিশনে একটি প্রস্তাব দিয়েছে। কমিশন প্রস্তাবটি পর্যালোচনা করে দেখছে। তবে সিদ্ধান্ত হয়নি। পরবর্তী বৈঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে।’



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই