মেইন ম্যেনু

‘পহেলা নভেম্বর আমার জীবনের শেষ দিন’

নিজেই নিজের মৃত্যুর দিন ঠিক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পোর্টল্যান্ডের এক নারী। ২৯ বছর বয়সী ওই নারীর নাম ব্রিটানি মেনার্ড। তিনি এক বছরেরও বেশি সময় ধরে মস্তিষ্কের ক্যান্সারে ভুগছেন।
গত জানুয়ারি থেকে তার চিকিৎসা চলছে। কিন্তু কোনো উন্নতি হয়নি। ফলে তিনি যন্ত্রণার হাত থেকে মুক্তি পেতে এবং পরিবারের সদস্যদের মুক্তি দিতে ওই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। যেহেতু তার বেঁচে থাকার কোনো সম্ভাবনা নেই।
সিএনএনডটকমের মতামত কলামে তিনি লেখেন, দীর্ঘদিন চিন্তা ভাবনা করে আমি ও আমার পরিবারের লোকজন একটি কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমার জীবন বাঁচাতে পারে এমন কোনো চিকিৎসা আর নেই। বেঁচে থেকে আমি শুধু সময়ই নষ্ট করছি। লেখাটিতে তিনি ছবি ও ভিডিও যুক্ত করেন।
তিনি লেখায় তার রোগের বিস্তারিত তুলে ধরে যন্ত্রণার তীব্রতা বোঝানোরও চেষ্টা করেন।
স্বামীকে সঙ্গে নিয়ে তিনি ক্যালিফোর্নিয়া থেকে ওরিগন রাজ্যে চলে গেছেন। কারণ এ রাজ্যে চিকিৎসকরা আত্মহত্যার পরামর্শ দিতে পারেন। যদি কোনো রোগীর ৬ মাসের বেশি বেঁচে না থাকার বিষয়ে চিকিৎসকরা নিশ্চিত হতে পারেন, তবে তারা আত্মহত্যার অনুমতি দিতে পারেন। এজন্য তারা নির্দিষ্ট ওষুধও দিয়ে থাকেন।
ব্রিটানি লিখেছেন, আমি সিদ্ধান্ত নিয়েছি পহেলা নভেম্বরেই হবে আমার জীবনের শেষ দিন। এর দুদিন আগে অবশ্য আমার স্বামীর জন্মদিনটা পালন করতে চাই।
তিনি ওই লেখায় এমন কিছু আবেগী কথা তুলে ধরেছেন যা মৃত্যু দেখতে পাওয়া মানুষের পক্ষেই প্রকাশ করা সম্ভব।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই