মেইন ম্যেনু

পর্নোসাইটে নিজের অর্ধনগ্ন ছবিতে আঁতকে উঠলেন তিনি!

‘হট এবং হর্নি’ পর্নো ওয়েবসাইটে নিজের ে দেখে আঁতকে উঠেছিলেন। কীভাবে তাঁর ছবি পর্নো সাইটে পৌঁছল? কিছুতেই বুঝে উঠছে পারছিলেন না। অবশেষে পুলিশের দ্বারস্থ হন মডেল অ্যালিসিয়া ডওভাল।

একটি রিপোর্টে জানা গিয়েছে, পর্নো সাইটটিতে একটি এক মিনিটের ভিডিও দেখতে পান জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো ‘বিগ ব্রাদার’-এর প্রাক্তন সেলেব। যেখানে শুধুই তাঁর ছবি। অনলাইনে নিজের ছবি ফাঁস হয়ে যাওয়ায় ওই ওয়েবসাইটকে হুমকিও দেন অ্যালিসিয়া। এর পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যালিসিয়া নামের একটি নকল প্রোফাইলেও তাঁর অর্ধনগ্ন ছবি ফাঁস হয়ে যায়। ছবির সঙ্গে আবার লেখা, “আমি একজন গ্ল্যামারাস মডেল, মিষ্টভাষী এবং সেক্সি। ফ্যানদের সঙ্গে একটু রসালো গল্প আর ফ্লার্ট করতে ভালোবাসি। তাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হওয়ার ইচ্ছেও রয়েছে। আমি হট আর হর্নি। এস, আমার সঙ্গে চ্যাট কর। ”

দেশটির পুলিশের ধারনা, সোশ্যাল মিডিয়া থেকেই ওই ওয়েবসাইটটি মডেলের ছবিগুলি পেয়েছে। ৩৭ বছরের অ্যালিসিয়া জানান, পর্নোগ্রাফিতে যে ছবিগুলি ব্যবহার করা হয়েছে, তা বেশ কয়েক বছর পুরনো। দেড় মিলিয়ন পাউন্ড অর্থ খরচ করে শরীরে মোট ৩৬০টি কসমেটিক সার্জারি করিয়েছেন অ্যালিসিয়া। বর্তমান মুখের সঙ্গে ওয়েবসাইটে ব্যবহৃত ছবির মধ্যে অনেক পার্থক্য রয়েছে। তবে পর্নো সাইটে নিজের ভিডিও দেখে বেশ বিরক্ত তিনি। পুরো ঘটনার তদন্ত করছে পুলিশ। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন।






মন্তব্য চালু নেই