মেইন ম্যেনু

পটকা ফোটালেই মামলা

পবিত্র শবে বরাত উপলক্ষে আতশবাজি ফোটালেই বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা করবে পুলিশ।

শবে বরাতের রাতে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এমনি কঠোর অবস্থান নেয়া হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। রাজধানীতে আতশবাজি, পটকা ফোটানো নিষিদ্ধ করে প্রায় প্রতিটি থানায় মাইকিং করা হয়েছে। এরপরেও কেউ যদি এ ধরনের উচ্ছৃঙ্খল কাজে লিপ্ত হয় তাহলে তার বিরুদ্ধে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা করা হবে বলে ঘোষণা দেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ-ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম-কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, শবে বারাতে আতশবাজি পটকা ফুটানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে। যারা এই কাজে লিপ্ত হবেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তিনি বলেন, শবে বারাতের ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য বজায় রাখা ও ছিনতাই, চুরি ডাকাতি ঠেকাতে ব্যাপক নিরাপত্তা নেয়া হবে।

“শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে শনিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত মহানগরীতে পটকা, আতবাজী ফুটানো যাবে না। ইতিমধ্যে পটকা আতশবাজির দোকানে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।”

সূত্র জানায়, শবে বারাতে আইন-শৃঙ্খলা সমুন্নত রাখতে ডিএমপি ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। বিশেষ করে সন্ধ্যার দিকে পটকা, আতশবাজি ও উচ্ছৃঙ্খলা রোধে পুলিশ কঠোর অবস্থানে থাকবে।

ভাটারা থানার ওসি মোহাম্মদ আলী বলেন, এ থানায় কূটনৈতিক এলাকা থাকায় কঠোর নিরাপত্তা নেয়া হয়েছে। কেউ যাতে পটকা বা আতশবাজি ফুটিয়ে উচ্ছৃঙ্খল পরিবেশ তৈরি করতে না পারে সে ব্যাপারে পুলিশ সচেতন রয়েছে।

বাড্ডা থানার ওসি এম এ জলিল বলেন, পুরো থানা এলাকায় সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানো হয়েছে। পুলিশ সচেতন রয়েছে।

গুলশান থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, অভিজাত এলাকাকে ঘিরে শবে বারাতে যেন কোনপ্রকার অপ্রিতিকর ঘটনা না ঘটে সে জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

একই কথা বলেন বনানী থানার ওসি ভুঁইয়া মাহবুব হোসেন।






মন্তব্য করুন