মেইন ম্যেনু

নেইমারের হ্নদয়স্পর্শী ভিডিও বার্তা প্রকাশ

ব্রাজিলিয়ান ফুটবল তারকা নেইমারের বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে গিয়েছে আগেই, ভক্তরা তবু আশা করে আছে তিনি ফিরে আসবেন। ভক্তদের সেই আশার সাথে সুর মেলালেন খোদ নেইমার। কলম্বিয়ান ডিফেন্ডারের হাঁটুর আঘাতে মেরুদণ্ডের অস্থিসন্ধি ভেঙে নেইমার এখন হাসপাতালে। নিরবিচ্ছিন্ন বিশ্রামই তাকে আবার ফিরিয়ে আনতে পারে ফুটবল অঙ্গনে। গণমাধ্যমসহ সারা বিশ্বের মানুষের আগ্রহের কমতি নেই নেইমারকে নিয়ে।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় নেইমার ভক্তদের উদ্দেশ্যে এক ভিডিও বার্তা পাঠিয়েছেন। ইউটিউবে ভিডিওটি এরই মধ্যে প্রায় ২৮ লক্ষ বার ভিজিট করেছে ভক্তরা।

বার্তার নেইমার বলেছেন, ‘এটা খুবই কঠিন মুর্হুত এবং আমি কোনো শব্দ খুজে পাচ্ছি না আমার অনুভূতি বোঝাতে। শুধু এটুকু বলতে চাই, আমি শীঘ্রই ফিরে আসবো। আমার সর্মথকদের আমি ধন্যবাদ দিচ্ছি সর্মথনের জন্য। আমার বিশ্বকাপ ফাইনাল খেলার স্বপ্ন শেষ হয়ে গেলেও আমার দলের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার আশা শেষ হয়নি। আমি আশাকরি আমার টিমমেটরা সেই স্বপ্ন পূরণে সচেষ্ট থাকবে।’

ব্রাজিলীয় ফুটবল কনফেডারেশনের প্রকাশ করা ভিডিওতে দেখা যায়, নেইমার বসে আছেন। সতীর্থরা বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন পূরণ করবেন, এমন আশাবাদের পর নিজের আরেকটা স্বপ্নের কথা বলেন নেইমার। যেটা অন্য কারও পক্ষে পূরণ করে দেওয়া সম্ভব নয়।

জাতীয় দলের ক্যাম্পও ছেড়েছেন নেইমার। হেলিকপ্টারে করে তাঁকে যখন রাজধানী রিও ডি জেনিরোতে নেওয়া হচ্ছিল, তখন এক হূদয়বিদারক পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। দলের চিকিত্সক হোসে লুইজ রুনকো জানিয়েছেন, পুরো সুস্থ হয়ে উঠতে দেড় মাস সময় লাগতে পারে নেইমারের। এ সময়ের মধ্যেই দাঁড়াতে ও হাঁটতে পারবেন তিনি। নেইমার ভক্তদের জন্য আরও একটা আশার বাণী উপহার দিলেন রুনকো।

মাঠে নামতে না পারলেও জার্মানির বিপক্ষে সেমিফাইনালেই দর্শক হিসেবে থাকতে পারেন নেইমার। ব্রাজিল দলের এই চিকিত্সক বললেন, ‘মঙ্গলবারের ম্যাচে দর্শক হিসেবে থাকতে পারেন নেইমার। এটা নির্ভর করছে তাঁর ব্যথার ওপর। যদি ব্যথা না থাকে, তিনি স্বস্তিবোধ করেন, তাহলে কোনো কিছুতেই নিষেধাজ্ঞা নেই।






মন্তব্য চালু নেই