মেইন ম্যেনু

নীলফামারীতে মহান স্বাধীনতা দিবসে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসুচী

হামিদা আক্তার, নীলফামারী : ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসুচী গ্রহণ করেছে নীলফামারী জেলা প্রশাসন। ৩১বার তোপধ্বনীর মধ্য দিয়ে শুরু হবে দিবসের আনুষ্ঠানিকতা। এরপর শহরের চৌরঙ্গি মোড়ে স্বাধীনতা স্মৃতি স্বম্ভে বীর শহীদদের শ্রদ্ধার্থে পুষ্পমাল্য অর্পণ, সুর্যোদয়ের সাথে সাথে সকল সরকারী, বেসরকারী, আধা-সরকারী, স্বায়ত্বশাসিত ভবনে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। নীলফামারী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সকাল সাড়ে আটটায় জেলা প্রশাসক কর্তৃক আনুষ্ঠানিক ভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে সেখানে সমাবেশ ও কুচকাওয়াজ পরিদর্শন, শারীরীক কসরত প্রদর্শণ অনুষ্ঠিত হবে।

একই স্থানে বীর মুক্তিযোদ্ধা, প্রবীণ, প্রতিবন্ধি ও ছাত্র ছাত্রীদের ক্রীড়ানুষ্ঠান এবং পুরস্কর বিতরণ করা হবে। এছাড়া নীলফামারী সরকারী বালক ও সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক প্রামাণ্য চলচিত্র প্রদর্শণ করা হবে। দুপুরে হাসপাতাল, জেলখানা, শিশু পরিবারে উন্নত মানের খাবার পরিবেশন করা হবে।

জাতির শান্তি, সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনা করে মসজিদ, মন্দির, গীর্জা, প্যাগোডায় বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে। জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কার্যালয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধণা, শিশু একাডেমিতে খেলাধুলা, চিত্রাংকণ, নৃত্য, মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণ, সরকারী মহিলা কলেজে মহিলাদের ক্রীড়ানুষ্ঠান এবং বিকেলে সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে লাঠি খেলা ও প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।
এছাড়া সন্ধ্যায় শিল্পকলা অডিটোরিয়ামে “মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে ডিজিটাল প্রযুক্তির ব্যবহার” শীর্ষক আলোচনা সভা শেষে সেখানে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান মঞ্চায়িত হবে।

জেলা প্রশাসক(ভারপ্রাপ্ত) এরশাদ আহসান হাবিব জানান, কর্মসুচীর আলোকে জেলা শহরের প্রধান প্রধান সড়ক, সড়কদ্বীপসমুহ জাতীয় পতাকাসহ বিভিন্ন পতাকাদ্বারা সজ্জিত করণ ও গুরুত্বপুর্ণ সরকারী, আধা সরকারী, স্বায়ত্বশাসিত ভবন স্থাপনা সমুহে আলোকসজ্জা করা হবে। সম্প্রতি জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে কর্মসুচী গ্রহণ করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই