মেইন ম্যেনু

ধোনি, শচীন, অজিঙ্ক, রোহিতদের প্রেমকাহিনী কেমন ছিল জানুন

অজিঙ্ক-রাধিকা : অজিঙ্ক রাহানে, ভারতীয় ক্রিকেট দলের মিস্টার ডিপেন্ডেবল হিসেবে পরিচিত। নিজের ব্যক্তিজীবনেও প্রেমকে লুকিয়ে রেখেছিলেন খুব সযত্নে। ২০১৪ সালে রাধিকা ধোপাভকরকে বিয়ের আগে তাঁদের সম্পর্কের বিষয়ে কেউই জানতে পারেননি।

অজিঙ্ক এবং রাধিকাকে মুম্বইয়ে কখনও একসঙ্গে কোনও ক্লাবে দেখা যায়নি। তাঁরা বেশিরভাগ সময় বাড়ির মধ্যেই থাকতেন, পরিবারের লোকের সঙ্গে একসঙ্গে সময় কাটাতে পছন্দ করতেন। রাহানের বহু বন্ধুদের দাবি, অজিঙ্ক-রাধিকার দেখাশোনা করেই বিয়ে হয়েছে। তবে দুজনে দুজনকে জানার কিছুটা সময় পেয়েছিলেন

রোহিত শর্মা-ঋত্বিকা: তবে রোহিত শর্মা-ঋত্বিকা সাজদের প্রেমের সফরের শুরুটা একটু অন্যরকম। ক্রিকেট দুনিয়ায় রোহিতকে বিয়ে করার আগে থেকেই পরিচিত নাম ছিলেন ঋত্বিকা। কারণ তিনি স্পোর্টস ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতেন। রোহিতেরও স্পোর্টস ম্যানেজার ছিলেন ঋত্বিকা। ঋত্বিকাকে বোরিভলি স্পোর্টস ক্লাবে নিয়ে গিয়ে প্রপোজ করেছিলেন রোহিত। ২০১৫-র ডিসেম্বরে ঋত্বিকা-রোহিতের বিয়ে হয়।

রবীচন্দ্রন অশ্বীন-পৃথ্বী: রবীচন্দ্রন অশ্বীন-পৃথ্বী নারায়নণ বিয়ের আগে দীর্ঘদিন প্রেম করলেও, তাঁদের সম্পর্কের বিষয় কেউ কখনও জানতে পারেননি।

ধোনি-সাক্ষী: ধোনি-সাক্ষীর প্রেমের পর্বও বলিউডের কোনও চিত্রনাট্যের তুলনায় কিছু কম আকর্ষণীয় নয়। তাঁরা একে অপরকে ছোটবেলা থেকে চিনলেও, মাঝে দুজনের বিচ্ছেদ হয়ে যায়। পরে কলকাতায় তাজ বেঙ্গল হোটেলে ধোনির সঙ্গে সাক্ষীর ফের দেখা। শুরু হয় তাঁদের প্রেমের সফর।

শচীন-অঞ্জলি: শচীন-অঞ্জলির প্রেম শুরু বিমানবন্দরে। বলা যেতে পারে তাঁদের ছিল প্রথম দেখাতেই প্রেম। তারপর ছ বছর প্রেম করেন শচীন-অঞ্জলি।দুজনে বিয়ে করেন সকলের নজরের আড়ালে। বিয়ের পাঁচ বছর পর জিভার জন্ম।






মন্তব্য চালু নেই