মেইন ম্যেনু

তুরস্কে নারী সৈনিকদের জন্য হিজাব অনুমোদন

তুরস্কের সশস্ত্র বাহিনীতে কর্মরত নারী সদস্যদের জন্য প্রথমবারের মতো মাথায় হিজাব পরিধান করার অনুমতি দেয়া হয়েছে। গত ২২ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) তুরস্কের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে এ ঘোষণা দেন। খবর দ্য মুসলিম নিউজ।

সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত নতুন আইন অনুযায়ী, নারী সৈনিকরা তাদের কর্মক্ষেত্রে ব্যবহৃত ইউনিফর্মের সাথে পরিহিত ক্যাপের নিচে এ হিজাব পরিধান করতে পারবে। তবে হিজাবের রং ইউনিফর্মের রঙের সঙ্গে মিল থাকতে হবে।

নতুন সংশোধনী আইন অনুযায়ী, বাহিনীর সদর দফতর ও শাখার সব সামরিক নারী অফিসার এবং নন-কমিশন অফিসাররাও তাদের ক্যাপের নীচে তাদের ইউনিফর্মের রঙের মতো অন্য কাপড় দিয়ে মাথা ঢাকতে পারবে। তবে ইউনিফর্মের বাইরে অন্য কোনো রঙ ব্যবহার করতে পারবে না।

নতুন সংশোধনী এ আইন শুধুমাত্র নিয়মতি কমিশন ও নন-কমিশন নারী অফিসার ও সৈনিকদের জন্যই নয় বরং সব নারী ক্যাডেট সদস্যদের জন্য প্রযোজ্য।

২০১৩ সালে ক্ষমতায় আসা জাস্টিস অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (একে) পার্টি একটি বৃহত্তর গণতন্ত্রীকরণ প্যাকেজের অংশ হিসেবে সিভিল সার্ভিসের ওপর থেকে হিজাবের নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে নিয়েছে।

উল্লেখ্য যে, ২০১০ সাল থেকেই তুরস্কের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো থেকে হিজার পরিধান করার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে। যা আগে তুরস্কে নিষিদ্ধ ছিল।






মন্তব্য চালু নেই