মেইন ম্যেনু

তুমুল প্রতিযোগিতা আর উত্তেজনার অবসান ঘটিয়ে জেলা প্রশাসক কাপ ট্রফি আশাশুনির ঘরে

তুমুল প্রতিযোগিতা আর উত্তেজনার অবসান ঘটিয়ে ওয়ালটন-জেলা প্রশাসক কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট প্রতিযোগিতার ট্রফি ঘরে তুলে নিল আশাশুনি উপজেলা দল। রোববার বিকাল ৩টায় সাতক্ষীরা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ এ ফাইনাল খেলার প্রথমার্ধের ৩৮ মিনিটের মাথায় কর্নার কিক থেকে হেডের মাধ্যমে দুর্দান্ত গোল করেন আশাশুনির কিংস। এরপরই গোল পরিশোধের প্রচেষ্টায় মরিয়া হয়ে ওঠে কালিগঞ্জ। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের ৩২ মিনিটের মাথায় DSC01121আবারো একটি গোল দেয় আশাশুনি। ফলে আশাশুনি উপজেলা দলের বিজয় নিশ্চিত ভেবে আন্দন্দে আত্মহারা হয়ে পড়ে দর্শক। তবে দুই দলই তাদের সেরা নৈপুণ্যতা প্রদর্শনের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা করেছে। সমাপনী খেলায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. জাহিদ আহসান রাসেল। ম্যাচের উদ্বোধন করেন সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবি। জেলা প্রশাসক নাজমুল আহসানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) লস্কার তাজুল ইসলাম ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট সৈয়দ রাশেদুল হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মীর মোদাচ্ছের হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, ওয়ালটন গ্রুপের অতিরিক্ত পরিচালক এফ এম ইকবাল-বিন-আনোয়ার (ডন), আশাশুনি উপজেলা চেয়ারম্যান এবিএম মোস্তাকিম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কোহিনুর ইসলাম, কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি শেখ আশরাফুল হক, কলারোয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ফিরোজ আহমেদ স্বপন, এটিএন বাংলা’র জেলা প্রতিনিধি এম কামরুজ্জামান প্রমুখ। টুর্নামেন্ট কমিটির সভাপতি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক DSC01097(সার্বিক) মো. মহসীন আলীর সহযোগিতায় টুর্নামেন্টটি সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক শেখ নিজাম উদ্দীন, যুগ্ম সম্পাদক আহম্মাদ আলী সরদার, কোষাধ্যক্ষ সাইদুর রহমান শাহীন, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সাধারন সম্পাদক ইকবাল কবির খান বাপ্পী, মহিলা কাউন্সিলর ফারহাদিবা খান সাথী প্রমুখ। খেলায় ধারাভাষ্যকার হিসেবে ছিলেন সুজা খান চৌধুরী, সৈয়দ মুহাম্মদ জাকারিয়া, মোহাম্মদ মোসলেম আলী ও শেখ মুহাম্মদ শাহীন। খেলায় সাতক্ষীরার সাতটি উপজেলা ও সদর পৌরসভাসহ মোট আটটি দল টুর্নামেন্টের হাজার হাজার দর্শক অংশগ্রহণ করে।






মন্তব্য চালু নেই