মেইন ম্যেনু

তারেকে আটকা ছাত্রদলের নতুন কমিটি

বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছে আটকে আছে ছাত্র দলের নয়া কেন্দ্রীয় কমিটি গঠনের ফাইল।

ছাত্রদলের বিশেষ একটি সূত্রে বিষয়টি জানা গেছে, ছাত্রদলের নতুন কমিটি ঘোষণার জন্য প্রার্থীদের বিস্তারিত তথ্য যাচাই বাছাই করে একটি খসড়া কমিটি তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি বিকল্প ১শ জনের একটি নামের তালিকা তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হয়েছে।

এখন পর্যন্ত এই ফাইলে তারেকের অনুমোদন না পাওয়ায় আটকে গেছে নয়া কমিটি গঠন। তারেকের অনুমোদন পেলেই যেকোন দিন নতুন কমিটির ঘোষণা আসতে পারে।

সূত্র জানায়, তারেক রহমানের কাছে পাঠানো নয়া কমিটির ফাইলে অছাত্রদের বাদ দিতে বয়সের বাধ্যবাধকতাসহ ৩২টি সুপারিশের কথা উল্লেখ করা হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য সুপারিশগুলো হলো- ছাত্রত্ব, অবিবাহিত, ব্যক্তিগত ক্লিন ইমেইজ, ত্যাগী-পরিক্ষিত, পারিবারিক ব্যাকগ্রাউন্ড এবং বয়স অবশ্যই ৩৩ এর নিচে এমন ছাত্রদের কমিটিতে স্থান দেয়া।

সূত্রটি আরো জানায়, ৫ জানুয়ারি ১০ম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে গতবছরের ২৯শে ডিসেম্বর বিএনপির চূড়ান্ত আন্দোলন ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসিতে’ উল্লেখ্যযোগ্য ভূমিকা রাখতে ব্যর্থ হওয়ায় ২৪ শে ফেব্রুয়ারি ছাত্রদল নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া নতুন কমিটি করার সিদ্ধান্ত নেন।

এজন্য তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপিপন্থী শিক্ষক ও সাংবাদিকদের ছাত্রদলের তালিকা তৈরি করতে নিদের্শ দিয়েছিলেন। সেই প্রেক্ষিতে তারা প্রায় আড়াইশজনের একটি তালিকা বেগম খালেদা জিয়ার নিকট জমা দিয়েছিলেন।

পরবর্তীতে বিএনপি চেয়ারপারসন নিজস্ব লোক দিয়ে তালিকা ছোট করে ১শ জনের তালিকা প্রস্তুত করেন। সেই একশজন থেকে ২০ জনের একটি তালিকা প্রস্তুত করা হয় চূড়ান্ত কমিটির জন্য। সেই নামগুলো কমিটি আকারে অনুমোদনের জন্য তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে।

ছাত্রদলের একটি দায়িত্বশীল সূত্র দাবি করেছে, ছাত্রদলের নয়া কমিটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে সিনিয়রদের দেয়ার বিষয়ে বিএনপির নীতিনির্ধারকরা একমত। সে অনুযায়ি একটি তালিকা তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ছাত্রদল নেতা জানান, ‘শুনেছি কমিটি অনুমোদনের জন্য তারেক রহমানের কাছে পাঠানো হয়েছে। সেখানে আমার নামও আছে বলে জানি যদি পদ পাই অবশ্যই ছাত্রদলের অপবাদ ঘোচাতে যথাসাধ্য চেষ্টা করবো।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মিনহাজ উদ্দিন ভূইয়া বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বা তারেক রহমান যিনিই যেমন কমিটি অনুমোদন করুক, সংগঠন শক্তিশালী করার স্বার্থে খুব তাড়াতাড়ি যেন ঘোষণা দেয়া হয়। যাদেরকেই কমিটিতে স্থান দেয়া হোক আমরা স্বাগত জানাবো। তবে যারা বাদ যাচ্ছেন তাদের বিষয়টা যেন আগে ফয়সালা করা হয়। এমনটা হলে কোন সমস্যা থাকবে না।’

কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেতে পারেন যারা-
আসন্ন নতুন কমিটিতে থাকতে পারেন বলে যে ২০ জনের নাম পাওয়া গেছে তারা হলেন- মামুনুর রশিদ মামুন (বর্তমান কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক), আক্রামুল হক (যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক), এজমল হুসেন পাইলট (যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক), সাদিউল কবির নীরব (ঢাবির সিনিয়র সহ-সভাপতি), বাইজিদ আরেফিন (আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক) আসাদুজ্জামান আসাদ (সমাজসেবা সম্পাদক), মামুন বিল্লাহ (সাহিত্য ও প্রকাশনা সম্পাদক), নাজমুল হক (দপ্তর সম্পাদক), মিয়া মহাম্মদ (ক্রীড়া সম্পাদক), মাফুজুল ইসলাম মাহফুজ (মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক), বিএম নাসিম (সহ আন্তর্জাতিক সম্পাদক), শামীম রেজা শামীম (ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক), আমির আমজাদ মুন্না (সদস্য), ফারুক হোসেন (সদস্য) মিনহাজ উদ্দিন ভূইয়া (ঢাবি সাংগঠনিক সম্পাদক), মাহমুদুল হাসান হিলেম (গত কমিটির সদস্য), মনিরুজ্জামান রোজেন, সরদার আমিরুল ইসলাম, আল মেহেদী তালুকদার ও কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ।






মন্তব্য চালু নেই