মেইন ম্যেনু

বর্ধমান বিস্ফোরণ :

তদন্তে ৪ জঙ্গির চেহারায় মিল

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেছেন, ভারতের এনআইএ প্রতিনিধিদল বর্ধমানের খাগড়াগড়ে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় সন্দেহভাজন জঙ্গিদের যে নামের তালিকা দিয়েছে তাদের মধ্যে কয়েকজনের এ ঘটনায় সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পেয়েছে বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। তারা বাংলাদেশে এক নাম ব্যবহার করে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড করে। আবার ভারতে গিয়ে আরেক নাম ব্যবহার করে অপরাধ সংঘটন করে।

মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশ সদর দফতরে ঢাকা সফররত ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা এনআইএর প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বৈঠক শেষে এ কথা জানান মনিরুর ইসলাম।

তিনি বলেন, এনআইএ প্রতিনিধিদল বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে কিছু সন্দেহভাজন জঙ্গির ছবি দিয়েছে। সে ছবিগুলোর মধ্যে বাংলাদেশের তালিকাভুক্ত চার জঙ্গি- ফারুক, বোমারু মিজান, সালেহীন ও সাজিবের চেহারার মিল পেয়েছেে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

চার সদস্যের এনআইএ দল আজ বেলা ১১টার দিকে ঢাকায় পৌঁছায়। চার সদস্যের দলে রয়েছেন এনআইএ’র সহপরিচালক শারদ কুমার, আইজি সঞ্জিত কুমার, ডিআইজি অনুরাগ তস্কা ও ডিআইজি সজীব ফরিদ।

চার সদস্যের এনআইএ দল গতকাল বেলা ১১টার দিকে ঢাকায় পৌঁছায়। চার সদস্যের দলে রয়েছেন এনআইএ’র সহপরিচালক শারদ কুমার, আইজি সঞ্জিত কুমার, ডিআইজি অনুরাগ তস্কা ও ডিআইজি সজীব ফরিদ।

প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের খাগড়াগড়ে বিস্ফোরণে দুজন নিহত হয়। ওই বিস্ফোরণের ঘটনার সঙ্গে বাংলাদেশের জঙ্গিরা জড়িত বলে সন্দেহ করছে ভারত।






মন্তব্য চালু নেই