মেইন ম্যেনু

ঠিকাদারের টাকায় চীন সফরে পাঁচ এমপি

দল বেঁধে ঠিকাদারের টাকায় বিদেশ সফরে গেছেন রেল মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির পাঁচ সদস্য এবং রেল মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাসহ ১২ জন। সাত দিনের সফরে গত ২২ মে তারা চীন গেছেন সেই দেশের রেলওয়ের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড দেখতে। তাদের দেশে ফেরার কথা শুক্রবার। তাদের এই বিদেশ ভ্রমণের পুরো খরচ বহন করছে রেলওয়ের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। রেল মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে এসব তথ্য।

রেল সূত্র জানায়, চায়না রেলওয়ের জমি অধিগ্রহণের বাস্তব অভিজ্ঞতা ও সেই দেশের রেলওয়ের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জ্ঞান আহরণের জন্য ২২ মে চীন গেছেন রেল মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আলী আজগর এমপি, মোহাম্মদ মিজানুর রহমান এমপি, মোহাম্মদ নোমান এমপি, মো. ইয়াছিন আলী এমপি এবং ফাতেমা জহুরা রানী। তাদের সঙ্গে রয়েছেন রেল মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব গুলনার নাজমুন নাহার, শাহ মো. ইমদাদুল হক, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক খান মো. নূরুল আমিন, বাংলাদেশ রেলওয়ের চিফ প্ল্যানিং অফিসার মো. মনজুরুল ইসলাম, পরিচালক (প্রকৌশল) আল ফাত্তাহ মো. মাসুদুর রহমান, রেল মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব (পিএস) আবদুল কাদের জিলানী এবং কমিটি অফিসার ফারহানা বেগম।

সূত্র জানায়, রেলওয়ের টঙ্গী-ভৈরব ডাবল লাইন প্রকল্পের চায়নাভিত্তিক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে ইউয়ান ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড (সিআরইইসি) এর আমন্ত্রণে এবং তাদের অর্থায়নে ১২ সদস্যের প্রতিনিধি দলটির এই সফরে প্রায় এক কোটি টাকার মতো খরচ হবে। যার পুরোটাই বহন করবে সিআরইইসি। রেলওয়ের টঙ্গী-ভৈরব ডাবল লাইন প্রকল্পটি প্রায় ২২ হাজার ১৩ কোটি টাকার। এর মধ্যে মূল রেললাইন নির্মাণ কাজে ব্যয় হচ্ছে এক হাজার ৮৪৪ কোটি টাকা। ইতিমধ্যে এই প্রকল্পের কাজ প্রায় শেষ হয়ে আসছে। কিন্তু প্রকল্পের শেষ পর্যায়ে এসে হঠাৎ করেই ঠিকাদারের টাকায় সংসদীয় কমিটির সদস্য এবং সরকারি কর্মকর্তাদের এমন বিদেশ সফর নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে খোদ রেল মন্ত্রণালয়ে।






মন্তব্য চালু নেই