মেইন ম্যেনু

দালালদের দৌরাত্ম্য রোধে

ট্রাভেল এজেন্টরা পাসপোর্ট রাখতে পারবে

হজ, ওমরাহ ও ভিসা প্রক্রিয়াকরণের জন্য যাত্রীদের পাসপোর্ট ট্রাভেল এজেন্টদের কাছে সাময়িকভাবে সংরক্ষণ করার অনুমতি দিয়েছে পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চ (এসবি)।

হজ ও ওমরা উপলক্ষে অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশের (অ্যাটব) আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে এ অনুমতি দেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র বাংলামেইলকে নিশ্চিত করেছে।

বাংলাদেশ পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের ইমগ্রেশন অ্যান্ড এয়ারপোর্টের এসএস কর্মকর্তা এজেডএম নাফিউল ইসলাম বলেন, ‘ট্রাভেল এজেন্টদের সঙ্গে আইশৃঙ্খলা বাহিনীর একটি মিটিং হয়েছে। তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে সাময়িকভাবে পাসপোর্ট রাখার অনুমতি দেয়া হয়েছে বলে শুনেছি। এ সংক্রান্ত আদেশ আমাদের নিকট আসলে তা যথাযথভাবে পালন করবো। এবং তাদের সহায়তা করবো।’

এ বিষয়ে অ্যাটবের ডেপুটি সেক্রেটারি মো. সফিকুল্লা নান্টু বলেন, ‘আমাদের সমস্যা ছিল টিকিট করার ক্ষেত্রে। টিকিট করতে অনেক সময় মূল পাসপোর্টের দরকার পড়ে। আগে পাসপোর্টের অনুকপি দিয়ে টিকিট ইস্যু করা হতো। আর এ সুযোগে দালাল চক্র অন্য আরেকজনের নামে টিকিট ইস্যুকরে জালিয়াতি করতো। আর সে জন্য আইন শৃঙ্খলা বাহিনী আমাদের হয়রানি করতো। এছাড়া অতিরিক্ত পাসপোর্ট আমাদের অফিসে থাকার দায়েও আইন প্রয়োগকারীরা আমাদের হয়রানি করে থাকে। সে জন্য মূল পাসপোর্ট সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য আমাদের নিকট রাখার আবেদন জানাই। আমাদের যৌক্তিক দাবি থাকায় তারা আমাদের এ অনুমতি দিয়েছেন। তবে টিকিট ইস্যুর ক্ষেত্রে পাসপোর্টের রেজিস্টার মেইনন্টেন করতে হবে।’

পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের ইমিগ্রেশন, পাসপোর্ট অ্যান্ড এসসিও বিভাগের ডিআইজি মুহম্মদ আমিনুল ইসলাম পক্ষ থেকে অ্যাটবের মহাসচিব জিননুর আহমেদ চৌধুরী দিপুকে যে পত্র দেয়া হয়েছে তাতে বলা হয়েছে, ‘অ্যাটব প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আমাদের যে আলচনা হয়েছে তা ফলপ্রসু হয়েছে। আলোচনা সূত্র ধরে আপনাকে জানাচ্ছি যে, এসবি, ডিবি, সিআইডি অথবা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী নামে পাসপোর্ট সংক্রান্ত আপনাদের অযথা হয়রানি অথবা ভয়ভীতি প্রদর্শন ইত্যাদি করলে তাৎক্ষণিকভাবে উল্লেখিত কর্মকর্তাদের সঙ্গে তাদের নামের পাশে বর্ণিত টেলিফোন নম্বরে সরাসরি যোগাযোগ করার জন্য আপনাকে অনুরোধ করছি।’






মন্তব্য চালু নেই