মেইন ম্যেনু

ট্যানারি স্থানান্তরে এবার বাণিজ্যমন্ত্রীর আল্টিমেটাম

রাজধানীর হাজারীবাগ থেকে সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে ট্যানারি স্থানান্তরে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর বার বার আল্টিমেটামের পর এবার সময় বেঁধে দিলেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেছেন, চলতি বছরের জুনের মধ্যে হাজারীবাগ থেকে সাভারের চামড়া শিল্প নগরীতে ট্যানারি স্থানান্তর করতে হবে। অন্যথায় যারা স্থানান্তর করতে পাড়বে না তারা সমস্যায় পড়বে।

রোববার চামড়া ও পাদুকাসহ চামড়াজাত পণ্যেকে ২০১৭ সালের বর্ষ সেরা পণ্য ঘোষণার বিষয়ক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আল্টিমেটাম দেন।

চামড়া শিল্প নগরীতে কেন্দ্রীয় বর্জ্য শোধনাগারের (সিইটিপি) স্থাপনের ব্যয় ট্যানারি মালিকরা নয় সরকার বহন করবে উল্লেখ করে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ট্যানারি স্থানান্তরে মালিকদের অনেক অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে। এর মধ্যে সিইটিপি স্থাপন ব্যয় তাদের জন্য আলাদা বোঝা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাই আমি অর্থ মন্ত্রণালয়কে বলবো, সিইটিপি স্থাপনে সব খরচ যেন তারা বহন করে। অবশ্যই এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রী আমার কথা রাখবেন।

তিনি বলেন, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে চামড়াজাত পণ্য রফতানি করে ১১৬ কোটি ৯ লাখ ৫০ হাজার মার্কিন ডলার আয় করেছে। দেশের দ্বিতীয় রফতানি খাত হিসেবে চামড়াজাত খাত ক্রমাগতভাবে এগিয়ে যাচ্ছে। যা অব্যাহত থাকলে এ খাতে ৫ বিলিয়ন ডলার রফতানি আয় করা সম্ভব। একইসঙ্গে আগামী ১০ বছরে চামড়া ও পাদুকাসহ চামড়াজাত পণ্য বিশ্ব অর্থনীতিতে অন্যতম প্রতিযোগী দেশ হবে বাংলাদেশ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, রফতানি পণ্য বহুমুখীকরণ ও বাজার সম্প্রসারণ, শিল্পায়ন উৎসাহিকরণ, দেশ বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্টকরণের লক্ষ্যে প্রতিবছর রফতানি যোগ্য সম্ভাবনাময় পণ্যকে ‘বর্ষ পণ্য’ ঘোষণার বিধান রয়েছে। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী চামড়া ও পাদুকাসহ চামড়াজাত পণ্যেকে ২০১৭ সালের বর্ষ পণ্য ঘোষণা করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব হেদায়েতুল্লাহ আল মামুন, শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব মিকাইল শিপার, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব শুভাশীষ বসু, শিল্প মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বেগম পরাগ, বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মো. শাহিন আহমেদ, লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (এলএফএমইএবি) সাবেক সভাপতি সাইফুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই