মেইন ম্যেনু

ট্যাংকারসহ ১৯ তেলচোর আটক

তেল চুরি করে পাচারের সময় একটি ট্যাংকারসহ ১৯ জনকে আটক করেছে বরিশাল কোস্টগার্ড সদস্যরা।

বুধবার গভীর রাতে পিরোজপুরের কচা নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।

আটকদের মধ্যে চারজন রয়েছে তেল চোরাই চক্রের সদস্য। এরা হলেন-পিরোজপুরের সামাদ তালুকদারের ছেলে আনছার উদ্দিন (৪০), আলতাফ হোসেন তালুকদারের ছেলে আব্দুস সালাম (৪৫), হাফেজ উদ্দিনের ছেলে ফারুক (৩৪) এবং মোতালেব ফকিরের ছেলে জাহাঙ্গীর (৪৫)।

বাকি ১৫ জন হলেন যমুনা ডিপো তেল ট্যাংকারের স্টাফ। এরা হলেন-চট্টগ্রামের মীরশরাই এলাকার আবু তাহের আহম্মেদের ছেলে শহিদুল ইসলাম (৩০), সিদ্দিক আহম্মেদের ছেলে শফিক (৩২), জালাল আহম্মেদের ছেলে নুরে আলম (৩৫), খোরশেদ আলমের ছেলে জিয়াউর রহমান (২৯), চট্টগ্রামের শীতাকুণ্ডের আব্দুর ভুঁইয়ার ছেলে সেকান্দার ভুইয়া (৩৫), ফয়েজ আহম্মেদের ছেলে নাছির উদ্দিন (৪০), নোয়াখালির সেকান্দার হোসেনের ছেলে দিদারুল ইসলাম (৪০), আব্দুল কুদ্দুস ড্রাইভারের ছেলে ফারুক (৪৫), ফরিদপুরের শাহাদাত সরদারের ছেলে শাহীন (২৯), কুমিল্লা জেলার লুৎফর রহমানের ছেলে সাইফ (৩০), ময়মনসিংহের আব্দুল কাদেরের ছেলে আব্দুস ছামাদ (৩৬), মাগুরা জেলার আউয়াল হোসেনের ছেলে শহিদুজ্জামান (৪০), ঝালকাঠি সদরের কাঞ্চন আলী খানের ছেলে রাজু (৩৫), বরিশাল ক্যাডেট কলেজ এলাকার মোবারক আলীর ছেলে মহসিন (২৪) এবং লক্ষীপুরের সিরাজুল ইসলামের ছেলে সুমন (২৫)।

বরিশাল কোস্টগার্ডের স্টাফ অফিসার (অপারেশন) ইফতেখার হোসেন জানান, রাতে কচা নদীতে ট্যাংকার থেকে তেল পাচার হচ্ছে এমন সংবাদে অভিযান চালানো হয়। পরে একটি ট্রলার ভর্তি তেলের ড্রামসহ চোর চক্রের ৪ সদস্য ও ট্যাংকারের ১৫ স্টাফ আটক করা হয়।

ট্যাংকারটি আনুমানিক ১০ লাখ লিটার তেল নিয়ে চট্টগ্রামের যমুনা ডিপো থেকে খুলনা জেলার যমুনা ডিপোতে যাচ্ছিল।

এ ঘটনায় আটকদের অভিযুক্ত করে বরিশালের কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই