মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, গ্যাস বিদ্যুতের দাম কোন খাতে কত টাকা বাড়লো

গ্রাহক পর্যায়ে বাড়লো গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) চেয়ারম্যান মনোয়ার ইসলাম বৃহস্পতিবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা দেন।

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন আইন ২০০৩ এর ধারা ২২(খ) ও ৩৪ এ প্রদত্ত ধারা ক্ষমতাবলে তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেম লিমিটেড, পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানি লিমিটেড, কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড এবং সুন্দরবন গ্যাস কোম্পানি লিমিটেড কর্তৃক ভোক্তা পর্যায়ে সরবরাহকৃত গ্যাসের মূল্যহার পুনঃনির্ধারণ করা হয়েছ-

বিদ্যুৎ : ১ মার্চ থেকে ২ টাকা ৯৯ পয়সা এবং ১ জুন থেকে ৩ টাকা ১৬ পয়সা।
ক্যাপটিভ পাওয়ার : ১ মার্চ থেকে ৮ টাকা ৯৮ পয়সা এবং ১ জুন থেকে ৯ টাকা ৬২ পয়সা।
সার : ১ মার্চ থেকে ২ টাকা ৬৪ পয়সা এবং ১ জুন থেকে ২ টাকা ৭১ পয়সা।
শিল্প : ১ মার্চ থেকে ৭ টাকা ২৪ পয়সা এবং ১ জুন থেকে ৭ টাকা ৭৬ পয়সা।
চা বাগান : ১ মার্চ থেকে ৬ টাকা ৯৩ পয়সা এবং ১ জুন থেকে ৭ টাকা ৪২ পয়সা।
বাণিজ্যিক : ১ মার্চ থেকে ১৪ টাকা ২০ পয়সা এবং ১ জুন থেকে ১৭ টাকা ৪ পয়সা।
সিএনজি : ১ মার্চ থেকে ৩৮ টাকা এবং ১ জুন থেকে ৪০ টাকা।

গৃহস্থালি

১. মিটারভিত্তিক : ১ মার্চ থেকে ৯ টাকা ১০ পয়সা এবং ১ জুন থেকে ১১ টাকা ২০পয়সা।
২. এক বার্নার (প্রতি মাসে নির্দিষ্ট) ১ মার্চ থেকে ৭৫০ টাকা এবং ১ জুন থেকে ৯০০।
৩. দুই বার্নার (প্রতি মাসে নির্দিষ্ট) ১ মার্চ থেকে ৮০০ টাকা এবং ১ জুন থেকে ৯৫০ টাকা।

এছাড়া প্রতি ঘনমিটার সিএনজি গ্যাসের প্রথম ধাপ এবং দ্বিতীয় ধাপ এর পুনঃনির্ধারিত মূল্যহারের মধ্যে ফিড গ্যাসের মূল্যহারে যথাক্রমে ৩০ এবং ৩২ টাকা এবং উভয় ধাপে অপারেটর মার্জিন ৮ টাকা অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। অন্যদিকে গ্যাস সরবরাহে বিদ্যমান অন্যান্য শর্তাবলি অপরিবর্তিত থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই