মেইন ম্যেনু

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনলাইন ভর্তি ফরমে সানি লিওন!

অশ্লীল ছবি যুক্ত করে অনলাইনে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তির ফরম পূরণ করার ঘটনা ঘটেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জে। এ ব্যাপারে সদর থানায় ডায়রি করা হয়েছে। অভিযোগ করা হয়েছে স্থানীয় র‌্যাব ক্যাম্পেও।

দেখা গেছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনার্স ভর্তির অনলাইন ফরমটি ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর প্রোফাইল দিয়ে পূরণ করে সেখানে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে সানি লিওন কিংবা অন্য কোন অশ্লীল ছবি। আর এ ঘটনায় বিপদে পড়েছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জের বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের একজন ছাত্র ও দুজন ছাত্রী কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান, তাদের শিক্ষা জীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। ভর্তি ফরমে অশ্লীল ছবি যুক্ত করে দিয়ে তাদের শিক্ষা জীবনের চরম সর্বনাশ ঘটানো হয়েছে। ফলে তারা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতাধীন অনলাইন ফরমটি পূরণ করতে পারেননি। এ ব্যাপারে তারা সদর থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করে দ্রুত ঘটনার প্রতিকার দাবি করেছেন।এদিকে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আওতাধীন অনার্স ভর্তি পরীক্ষার জন্য অনলাইনে ফরম পূরনের সময় বেধে দেওয়া হয়েছে আগামী ২০ নভেম্বর পর্যন্ত।

মো. মহিউদ্দীন, রোজী সুলতানা ও লাকী ইসলাম নামের এই ৩ শিক্ষার্থী জানান, তারা চলতি বছর মাধ্যমিক পরিক্ষায় পাস করে অনার্সে ভর্তির জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ইতোমধ্যে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি তারিখ ঘোষণা হলে গত ১৫ নভেম্বর তারা স্থানীয় একটি কমম্পিউটারের দোকানে যান এবং দেখতে পান কে বা কারা তাদের অনলাইন ফরম পূরণ করে ফেলেছে। ফরমে সংযুক্ত করা হয়েছে ৩টি অশ্লীল ছবি। পূরণকৃত ফরমে মহিউদ্দীনের কনট্রাক্ট নম্বর (ফোন নম্বর) দেওয়া হয়েছে ০১৭১১১১১১১১ এবং রোজী ও লাকীর কনট্রাক্ট নম্বর দেওয়া হয়েছে ০১৭২২২২২২২২।

তারা সন্দেহ করেন, সরকারী কলেজের একটি মেয়েলী ঘটনার জের ধরে ‘ফ’ আদ্যাক্ষরের অনার্স ফাইনাল ইয়ারের এক বড় ভাই এ অনৈতিক কাজ করে থাকতে পারেন। তার মোবাইল ফোনের শেষ পাঁচটি ডিজিট –৭৬৭৩০। বিষয়টি তারা স্থানীয় র‌্যাব ক্যাম্পসহ অন্যান্য আইন-শৃংখলা বাহিনীকেও অবহিত করেছেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর সুলতানা রাজিয়া প্রযুক্তির অপব্যবহার নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেন। তিনি জানান, ইতোমধ্যে বিষয়টি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই