মেইন ম্যেনু

জবির বাস রেখে পালালো ছাত্রলীগ, ভাঙ্গলো ছাত্রদল

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিবহন বাস ‘দুর্জয়’ ভাংচুর করেছে ছাত্রদল কর্মীরা। জবি ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের নির্দেশে ছাত্রলীগ কর্মীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস নিয়ে বকশীবাজারে ছাত্রদলের বিরুদ্ধে সংঘর্ষে অংশ নিতে গেলে বুধবার দুপুরে বঙ্গবাজারে এ ঘটনা ঘটে।
এতে বাসের ড্রাইবারসহ কমপক্ষে ৫ জন আহত হয়েছেন।
এবিষয়ে দুর্জয় বাসের ড্রাইভার মকবুল হোসেন বলেন, ‘আমাকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন ম্যানেজার আজিজ ফোন করে নির্দেশ দেন যে, কিছু শিক্ষার্থী বঙ্গবাজারে যাবে। তুমি বাস নিয়ে ওদেরকে রেখে এসো। তখন ছাত্ররীগের সেক্রেটারি সিরাজের নেতৃত্বে ৫০-৬০ জন বাসে উঠে। আমি গাড়ী নিয়ে বঙ্গবাজার গেলেই ভাংচুর শুরু হয় এবং আগুনও দেয়। আমি আগুন নেভানোর চেষ্টা করি। কিন্তু ছাত্ররা পালিয়ে যায়। এতে বাসের ভেতরে পাঁচটি সিট পুড়ে গেছে এবং সামনের গ্লাস ও জানালার গ্লাস সব ভেঙ্গে গেছে। তবে আমি অহতে হয়েছি, প্রাণে বেঁচে গেছি।’
এবিষয়ে জবি ছাত্রলীগের সভাপতি শরীফুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, সাধারণ শিক্ষার্থীরা বাস নিয়ে কোন একটি প্রোগ্রামে নিয়ে গেছে। পরে বিএনপিরা এ বাস দেখেই ভেঙ্গে দিছে। এটা ন্যাক্কারজনক।
এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচায ড. মীজানুর রহমান বলেন, আমাদের দুটি গাড়ী দুপুরের ট্রিপে পল্টন দিয়ে যাচ্ছিল। তখন সেটি ভেঙ্গে দিয়েছে। তবে ছাত্রলীগের বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন।

এদিকে বাস ভাংচুরের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তারা বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তুলনায় পরিবহনের সংখ্যা অত্যন্ত নগন্য। এছাড়া ছাত্র সংগঠনের কর্মীরা রাজনৈতিক কাজে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস ব্যবহার করে ভেঙ্গে আনবে, আর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন কোন ব্যবস্থা নিবে না এটা হতে পারে না।






মন্তব্য চালু নেই