মেইন ম্যেনু

ছয় বছরের রেকর্ড ভাঙলেন তামিম

২০০৯ সালে তামিম হয়তো নিজের সেরা সময় পার করেছেন! সে বছর ৫ ম্যাচে ৬০ গড়ে তামিম রান করেন ৩০০। জিম্বাবুয়ের মাটিতে বাংলাদেশ সেবার ওয়ানডে সিরিজ জিতে নেয় ৪-১ ব্যবধানে।

সেবার তামিমের দাপটেই ল-ভ- হয়ে যায় জিম্বাবুয়ে। দ্বিপাক্ষিক সিরিজে সেটি ছিল যে কোনো বাংলাদেশির সর্বোচ্চ রান। ৫ ম্যাচে তামিম একটি সেঞ্চুরির পাশাপাশি হাঁকান দুটি হাফসেঞ্চুরি। সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটি ছিল ১৫৪।

ছয় বছর ধরে তামিমের রেকর্ডটি কেউ ভাঙতে পারেনি। এবার তামিম নিজেই নিজের রেকর্ড ভেঙেছেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে মাত্র ৩ ম্যাচেই তুলে নিয়েছেন ৩১২ রান। আগেরটি থেকে ১২ রান বেশি। এবার দুটি সেঞ্চুরি আর একটি হাফসেঞ্চুরি। সর্বোচ্চ রান ১৩২। গড় ১৫৬। স্ট্রাইক রেট ৯৫.৪১।

তিন ম্যাচে তামিমের ব্যাট থেকে এসেছে ৪০টি চার ও ৫টি ছক্কা, যা আগেরটির থেকেও বেশি। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৯টি চার ও ৭টি ছক্কা হাকান বাঁহাতি এই ওপেনার। তামিমের পর এই তালিকায় আছেন শাহরিয়ার নাফিস। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫ ম্যাচে ২৭৪ রান করেছেন শাহরিয়ার নাফিস।






মন্তব্য চালু নেই