মেইন ম্যেনু

চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর পৌঁছেছেন রাষ্ট্রপতি

বুকে তীব্র ব্যথা নিয়ে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর গেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। স্থানীয় সময় আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় তিনি সিঙ্গাপুরের চাঙ্গি ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে পৌছাঁন বলে রাষ্ট্রপতির প্রেসসচিব ইহসানুল করিম জানান। সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মাহবুব-উজ-জামান রাষ্ট্রপতিকে বিমানবন্দরে স্বাগত জানান। এর আগে বুধবার রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের একটি নিয়মিত ফ্লাইটে ঢাকা ছাড়েন রাষ্ট্রপতি।

রাষ্ট্রপতি ঢাকা ছাড়ার আগে তার প্রেসসচিব ইহসানুল করিম বলেন, রাষ্ট্রপতির বুকের পাজরে তীব্র ব্যথা হওয়ায় চিকিৎসকের পরামর্শে চিকিৎসার জন্য তিনি সিঙ্গাপুর যাচ্ছেন। গত ২৬ এপ্রিল রাষ্ট্রপতি বুকে ব্যথা নিয়ে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে গেলে সেখানকার চিকিৎসকরা তাকে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার পরামর্শ দেন বলে জানান তিনি। চিকিৎসা শেষে আগামী ৪ মে রাষ্ট্রপতির দেশে ফেরার কথা বলে জানান প্রেসসচিব।

এর আগে গত মাসে স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও চোখের চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্যে যান রাষ্ট্রপতি। আটদিনের সফর শেষে ১৫ মার্চ দেশে ফেরেন তিনি। ৭২ বছর বয়সী আবদুল হামিদ স্পিকারের দায়িত্বে থাকার সময় চিকিৎসার জন্য নিয়মিত সিঙ্গাপুরে যেতেন। ২০১৩ সালের এপ্রিলে রাষ্ট্রপতি হিসেবে শপথ নেওয়ার পরও সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নিয়েছেন তিনি। সর্বশেষ গত বছরের নভেম্বরে সিঙ্গাপুর যান হামিদ।

চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর গেলেন রাষ্ট্রপতি
পাঁজরে ব্যথার চিকিৎসা করাতে সিঙ্গাপুরে গেছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। বুধবার রাত ১১টা ৫৫ মিনিটে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে করে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ছাড়েন তিনি। বার্তা সংস্থা ইউএনবির খবরে বলা হয়, বিমানবন্দরে রাষ্ট্রপতিকে বিদায় জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, মন্ত্রিপরিষদসচিব, তিন বাহিনীর প্রধানগণ, স্বরাষ্ট্রসচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব, পররাষ্ট্রসচিব, বাংলাদেশে সিঙ্গাপুর কনসুলেটের কনসাল জেনারেল ও সামরিক-বেসামরিক বাহিনীর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এর আগে গত ২৬ এপ্রিল স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি হয়েছিলেন রাষ্ট্রপতি। ওই সময় সেখান থেকে তাঁকে উন্নত চিকিৎসার্থে সিঙ্গাপুর যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। আগামী ৪ মে রাষ্ট্রপতি সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরবেন বলে আশা করা হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই