মেইন ম্যেনু

গাড়ি চালায় মৃতদেহ !

আর পাঁচটা দিনের মতই শ্যুট, টাই আর টুপি পরে সেদিনও বেরিয়েছিলেণ প্রিয় ট্যাক্সিটা নিয়ে। তবে বাকি দিনগুলোর মত সেদিনের ফারাকটা একটু ছিল। কারণ ওটাই ছিল ওর শেষ সফর।

মারা যাওয়ার পর কফিনবন্দি না হয়ে তিনি অন্তিম যাত্রায় চলেছিলেন প্রিয় ট্যাক্সিতে চড়ে। ভালোবাসার জিনিসকে একেবারে শেষ যাত্রার সঙ্গী করে সবার মন জিতে নিলেন ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের পুয়েরর্তো রিকোর ট্যাক্সি ড্রাইভার ভিক্টোর পেরেজ কারদোনা।

৭৩ বছরের এই ট্যাক্সি ড্রাইভার ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। এরপর তার ইচ্ছা অনুসারে ভিক্টোরের মৃতদেহ বহন করে নিয়ে যাওয়া হয় তার ট্যাক্সিতে করে। নিজের মরদেহ নিজেই বহন করে নিয়ে চললেন ভিক্টোর।

তার পেছনে অগণিত মানুষের ভিড়। ভিক্টোরের ট্যাক্সিকে টেনে নিয়ে চলল সাধারণ মানুষ। ড্রাইভারের সিটে তার নিথর দেহ। হাজার হাজার মানুষ তখন চলছে ভিক্টোরের শেষ সফরে। কারো চোখে জল, কারো মুখে গান।

ভিক্টোরের মেয়ে জানালেন, বাবা ওনার ট্যাক্সিকে খুব ভালোবাসতেন। আগে ভিক্টোর বাস চালাতেন, তারপর ডলার জমিয়ে কেনেন নিজের ট্যাক্সি। ট্যাক্সি চালাতে এতোটাই ভালোবাসতেন যে, কখনো ছুটি নিতে চাইতেন না।

কোথাও ঘুরতে গেলেও নিজের ট্যাক্সিতেই যেতেন। তার সেই প্রিয় ট্যাক্সির ড্রাইভারের সিটে বসে জীবনের শেষ যাত্রা করলেন। সেই ট্যাক্সি থেকে নামিয়ে গতকাল তাকে অন্তিম শয্যায় শায়িত করা হয়।

তথ্যসূত্র : জিনিউজ



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই