মেইন ম্যেনু

‘গাধা’ তাঁর প্রেরণা, উত্তরপ্রদেশের নির্বাচনে গিয়ে কেন বললেন মোদী?

গাধা বিতর্কে সমাজবাদী পার্টির মুখ অখিলেশ যাদবকে জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে তিন দিন অপেক্ষার পরে। গরু উত্তরপ্রদেশে নির্বাচনের ইস্যু হয়েছে অতীতে। এ বারেও হয়েছে। কিন্তু এই প্রথমবার গাধাও নির্বাচন-যুদ্ধের অঙ্গ হয়ে উঠল।

গত ২০ ফেব্রুয়ারি ভোট প্রচারে রায়বরেলিতে সমাজবাদী পার্টির সভাপতি অখিলেশ সিংহ যাদব একটি জনসভায় বিগ-বি-কে ‘গুজরাতের গাধাদের’ হয়ে প্রচার না করার অনুরোধ করেন।

ওই জনসভায় অখিলেশ বলেন, ‘আমি দেশের এই শতকের শ্রেষ্ঠ তারকাকে (বিগ বি) অনুরোধ করব, গাধাদের জন্য প্রচার না করতে।’

সরাসরি নাম না করেও মোদীকে ‘গুজরাতের গাধা’ বলে উল্লেখ করেন। আর শ্রেষ্ঠ তারকা বলে তিনি যে নাম না করে অমিতাভ বচ্চনের কথাই বলতে চেয়েছেন, তা স্পষ্ট। কারণ, অমিতাভ বচ্চন গুজরাতের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর হিসেবে কচ্ছ ওয়াইল্ড অ্যাস ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংকচুয়ারির প্রচারে একটি বিজ্ঞাপন করেছেন। সেই বিজ্ঞাপনে গাড়ি নিয়ে ‘ওয়াইল্ড অ্যাস’ খুঁজতে দেখা যায় বিগ বি-কে।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী অখিলেশের সেই মন্তব্যের জবাব দিলেন। তিনি বলেন, ‘আমি গাধার থেকেও প্রেরণা পাই। কারণ, গাধারা মালিকের অনুগত হয়, যাবতীয় দায়িত্ব পালন করে।’ এখানেই থামেননি প্রধানমন্ত্রী। সোমবার অখিলেশ বলেন, ‘গাধাদের জন্য কেউ কখনও প্রচার করতে দেখেছেন? গুজরাতের মানুষ তা-ই করছেন।’ এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী পশুদের মধ্যেও বিভাজনের অভিযোগ তুলে বলেন, ‘গাধাদের এত অপছন্দ কেন? আমি আপনার বিভাজন নীতি দেখে আশ্চর্য হয়ে যাচ্ছি। তা থেকে গাধাও বাদ যায় না!’ এই প্রসঙ্গেই তিনি গাধার থেকে প্রেরণা পাওয়ার কথা বলেন। একই সঙ্গে উল্লেখ করেন যে, ২০০৩ সালে গুজরাতের গাধাদের নিয়ে ডাকটিকিট প্রকাশিত হয়।






মন্তব্য চালু নেই