মেইন ম্যেনু

খুলনায় ডাক্তারের সাথে মেডিকেল ছাত্রীর যৌন ভিডিও ফাঁস!

চলচিত্রের নায়িকাদের মত খুলনা মেডিকেল কলেজের এক ডাক্তারের যৌন কেল্কোরির ঘটনা ফাঁস হয়ে গেছে। খুমেক মেডিকেল কলেজের সার্জারি বিভাগের ডা. নিরুপম মণ্ডলের ভিডিও কেলেন্কারির বিষয়টি খুলনা জুড়ে ‘টক অব দ্যা সিটি’ তে পরিনত হয়েছে।

খুলনা মেডিকেল কলেজের ডাক্তার নিরুপম মণ্ডল দীর্ঘদিন ধরে এক ছাত্রীর সাথে অবাধে চলাফেরা করছেন। ঐ ছাত্রীকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে স্বামী স্ত্রীর মত চলাফেরা করছেন। এ ঘটনা জানাজানির পর খুলনায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

ছাত্রীর সঙ্গে ডাক্তারের লিভ টুগেদারের অভিযোগে খুমেক হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ডা. নিরুপম মণ্ডলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ইতিমধ্যে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। এক কন্যা সন্তানের জনক ডা. নিরুপম এর আগেও দু’টি বিয়ে করেছিলেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

ঘটনা সুত্রে জানা যায়, খুমেক হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ডা. নিরুপম মণ্ডল দীর্ঘ দিন মেডিকেলের এক ছাত্রীর সাথে অনৈতিক কর্মকান্ড করে আসছেন। এ ঘটনা ফাঁস হয় যায়। ডা. নিরুপম ধর্ম পরিবর্তন করে মুসলমান হবে ও ওই ছাত্রীকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলেন।

সোনাডাঙ্গা থানার এস আই জেলাল হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গত মঙ্গলবার গভীর রাতে নগরীর বসুপাড়া চিরুনি ফ্যাক্টরি এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে খুলনা মেডিকেল কলেজের এক ছাত্রী (২২) ও ডা. নিরুপম মণ্ডলকে অনৈতিক কর্মকান্ডের সময় হাতেনাতে ধরা হয়। এসময় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।dr_khulna

গ্রেপ্তারকৃত ডা. নিরুপম মণ্ডল নিজেকে মুসলমান এবং ছাত্রীকে স্ত্রী পরিচয় দিয়ে বাসা ভাড়া নিয়ে বিগত তিনমাস ধরে লিভ টুগেদার করে আসছিলেন। খুমেক হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ডা. নিরুপম মণ্ডলকে প্রতারণার অভিযোগে কেএমসি’র ওই ছাত্রী ও ডা. নিরুপম মণ্ডলকে কেএমপি’র ৭৭ ধারায় কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী এস আই জেলাল হোসেন বলেন, খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি ডা. নিরুপম মণ্ডলের প্রথম স্ত্রী’র সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে এবং দ্বিতীয় স্ত্রী দীপা’র ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। পূর্বে দু’টি বিবাহ থাকার কথা গোপন রেখেই মুসলমান ছাত্রীকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে দীর্ঘদিন লিভ টুগেদার করছিলেন।

উল্লেখ্য, গত বছর খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডা. জুয়েল কৃষ্ণ সুরও একই কলেজের এক মুসলিম ছাত্রীকে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে লিভ টুগেদারের ঘটনা প্রকাশ পাওয়ায় নগরীতে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছিল।

[ প্রথম ছবিটি প্রতীকী ]



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই