মেইন ম্যেনু

ধারের টাকা ফেরত না দিতে হত্যা

খুনের কথা স্বীকার করলেন মেমোরি আশিক

মাত্র ৬০ হাজার টাকা ফেরত দেওয়ার ভয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে রাজবাড়ী বাজারের অন্যতম কাপর ব্যাবসায়ী আছাদুজ্জামান মোল্লা ওরফে মাসুদকে। ২৬ বছর বয়সী ওই ব্যাবসায়ীকে সুকৌশলে ডেকে নিয়ে গলার নিচে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করা হয়।

গত রবিবার রাতে রাজবাড়ী জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৌহিদুল ইসলামের আদলতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে আশিকুর রহমান আশিক ওরফে মেমোরি আশিক এ তথ্য জানিয়েছেন। আশিক জেলা সদরের লক্ষীকোল গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

রাজবাড়ী গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওসি মিজানুর রহমান জানিয়েছেন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতরবিবার গোয়েন্দা পুলিশ আশিককে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের পর পুলিশের জিঞ্জাসাবাদে আশিক হত্যা কান্ডের কথা স্বীকার করে।

এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) নিজাম উদ্দিন বলেন, জেলা সদরের ৩ নং বেরাডাঙ্গা গ্রামের কাপর ব্যাবসায়ী আছাদুজ্জামান মোল্লা ওরফে মাসুদ তার প্রতিবেশী রনি মোল্লার কাছে ৬০ হাজার টাকা পেতেন এ টাকা যাতে ফেরত না দেওয়া লাগে তার জন্য এ হত্যার পরিকল্পনা করা হয়।

গত ১৯ এপ্রিল রাতে মাসুদকে সুকৌশলে ডেকে আশিক রনিসহ তিনজন তার জেলা শহরের তার ভবানীপুর লালমিয়া সড়কের ভারা বাসায় নিয়ে যান এবং লার নিচে পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করে।

যে গুলিটি মাথার খুলিসহ বের হয়ে যায় এবং মাসুদ ঘটনাস্থলে মারা যায়। তবে হত্যা মিশনে কারা ছিলেন ৩ জন। লাশ শহরের ওই বাসা হতে মাইক্রোবাসে গোয়ালন্দ উপজেলার চরপাচুরিয়া এলাকায় তাল গাছের বস্তাবন্দি করে ফেলে দেয় অন্য এক গ্রুপ। যাদের পরিচয় পুলিশ পেলেও গনমাধ্যমকে তা প্রকাশ করেনি। যে লাশটি পরের দিন গোয়ালন্দ থানার পুলিশ উদ্ধার করে।






মন্তব্য চালু নেই