মেইন ম্যেনু

খালেদা জিয়াকে একহাত নিলেন নিলু

দেশব্যাপি নৈরাজ্য, মানুষ হত্যা, দেশের সম্পদ নষ্ট করার জন্য যদি কোন মামলা হয় তবে সেই মামলার প্রধান আসামি হবেন বেগম খালেদা জিয়া বলে মন্তব্য করেছেন ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চেয়ারম্যান শেখ শওকত হোসেন নিলু।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেট নগরীর একটি হোটেলে স্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এমন মন্তব্য করেন। এসময় তিনি খালেদা জিয়ার প্রতি নানা বিষেদগারও করেন।

নিলু বলেন, ‘৫ জানুয়ারি নির্বাচনে অংশ নেয়ার জন্য আমি ২০ দলীয় জোটকে প্রস্তাব করেছিলাম। সেদিন যদি জোট নির্বাচনে যেত তা হলে আজকে মধ্যবর্তী নির্বাচনের জন্য আন্দোলন করতে হত না। বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচনে না গিয়ে ঐতিহাসিক ভুল করেছেন।’

দুঃখ প্রকাশ করে এনপিপির চেয়ারম্যান বলেন, ‘২০ দলীয় জোট আন্দোলন সংগ্রামের নামে ট্রেনে আগুন ধরিয়ে, বাসে আগুন ধরিয়ে মানুষ মেরে ও আন্দোলনের নামে জোট দেশব্যাপি নৈরাজ্য করেছিল তার জন্য আমি দুঃখিত, লজ্জিত এবং দেশবাসীর কাছে আমি ক্ষমা চাই।’

এক প্রশ্নের জবাবে নিলু বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু জাতির পিতা, মাওলানা ভাসানী ১৯৫৭ সালের কাগমারী সম্মেলনে পাকিস্তানকে সালাম দিয়ে বলেছিলেন, বাংলার মানুষ স্বাধীনতা চায়। জিয়াউর রহমান একজন মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীনতার ঘোষক। তাদের প্রত্যেককেই সম্মান জানানো উচিৎ।’

তিনি বলেন, ‘৩৮ বছর জিয়া পরিবারের সঙ্গে আমি ছিলাম। কিন্তু বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইফতার পার্টিতে যাওয়ায় খালেদা জিয়া আমার সঙ্গে দেখাই করেননি। আবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে এলে খালেদা জিয়া দেখাই করেননি। কিন্তু ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ৪৫ মিনিট অপেক্ষা করেও দেখা করেছেন।’

দেশের নবগঠিত জোট এনডিএফ’র চেয়ারম্যান নিলু আরো বলেন, ‘দেশের মানুষ চায় আমাদের নেতৃত্বে অবাধ, সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তন করে আমাদের ফ্রন্টকে ক্ষমতায় বসাতে। আমরা শিগগিরই মধ্যবর্তী নির্বাচনের দাবিতে দেশব্যাপী আন্দোলন শুরু করব।’

এনডিএফের মহাসচিব আলমগীর মজুমদারের পরিচালনায় মতবিনিময় সভায় উপস্থিত অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ মুসলিম লীগের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জোবাইদা কাদের চৌধুরী, মহাসচিব আতিকুল ইসলাম, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান শেখ আনোয়ারুল হক, মহাসচিব হাসরত খান ভাসানী প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই