মেইন ম্যেনু

কয়লার অভাবে সংকটে পাবনার ইটভাটা

কয়লা সরবারাহ বন্ধ থাকায় জ্বালানি সমস্যায় পাবনার ইট ভাটা গুলো হুমকির মুখে পড়েছে, সেইসাথে এর সাথে জড়িত কয়েকশ শ্রমিক বেকার সময় কাটাচ্চে। জেলায় সমিতি ভুক্ত ৮৬ টি ভাটার মধ্যে জিগজাগ ভাটা রয়েছে ৩২টি যা কয়লা ছাড়া চালানো সম্ভব নয়। বাকি ৫৪টিতটে কাঠ পোড়ানো গেলেও তা ব্যবহার সরকারি ভাবে নিশিদ্ধ। সমিতি সংশ্লিষ্টরা জানান, ভাটায় ব্যবহার উপযোগি কয়লা আমদানি করা হয় ভারত থেকে। কিন্তূ ৫ মাস ধরে তা আমদানি বন্ধ রয়েছে। এদিকে ভাটার জন্য বিকল্প কোন ব্যবস্থা করা হয়নি। কয়লা আমদানির ব্যপারে দ্রুত প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য তারা সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। পাবনা ইট ভাটা মালিক সমিতির সভাপতি আবুল কাসেম আশঙ্কা করেন, কয়লার অভাবে যে কোন সময় পাবনা সহ সারা দেশের ইট ভাটা গুলো বন্ধ হয়ে যেতে পারে। এ ব্যপারে পাবনা জেলা প্রশাসক কাজী আশরাফ জানান, কয়লা আমদানির বন্ধের খবরটি তিনি পত্রিকায় দেখেছেন। তবে ইট ভাটার মালিকরা তাদের সমস্যার কথা জানাননি। আমদানীর বিষয়টি মন্ত্রনালয়ের, তাই এ বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারেন না।

পাবনায় ভেজাল বিরোধী অভিযান : বিস্কুট কারখানায় ১৫ হাজার টাকা জরিমানা
পাবনার কালিকাপুর বাজারে ভেজাল বিরোধী অভিযানে মারুফ ব্রেড এন্ড বিস্কুট কারখানাতে জরিমানা আদায় করা হয়েছে। বিকেল ৪টার দিকে পাবনা জেলা প্রশাসকের উদ্বোগে এ অভিযান পরিচালনার নেতৃত্ব দেন, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আরাফাত রহমান। এসময় উক্ত বাজারে এ অভিযানে অপরিষ্কার ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে রুটি ও বিস্কুট তৈরির কারনে ঐ কারখানার মালিক মোবারক হোসেনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময় আরাফাত রহমান জানান, পাবনাতে যত বেকারী আছে পর্যায় ক্রমে সবগুলোতে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা অব্যাহত থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই