মেইন ম্যেনু

ক্রিকেটারদের জন্য রামদেব আনছেন ‘নো-বল জুতা’!

যোগগুরু রামদেবেবের ভাণ্ডারে কী নেই! সুস্থ ও সবল ভাবে মানবজাতিকে বাঁচানোর যেন ব্রত নিয়েছেন এই ভারতের যোগগুরু। কিন্তু, এবার যা করতে চলেছেন, তার পিছনের আসল কাহিনি অকল্পনীয়।

বাবা রামদেব আর কী কী করবেন? যোগাসন দিয়ে পাদপ্রদীপের আলোয় এসেছিলেন। কিন্তু, সেই বৃত্ত ছাড়িয়ে বাবা রামদেবের পত্রঞ্জলি সংস্থা এখন নানা ধরনের নিত্যব্যবহার্য জিনিসও তৈরি করছে। কী নেই তাতে- সকালে উঠে খালি পেটে খাওয়ার জন্য আমলকি রস থেকে অ্যালোভেরা জুস। চুল উঠে যাচ্ছে? বাবা রামদেবের পত্রঞ্জলির হেয়ার-ওয়েল মেখে নিন।

আরও আছে ভাণ্ডারে। শ্যাম্পু থেকে সাবান, পেস্ট, স্কিন লোশন, ফেস ক্রিম, বিস্কিট, সরিষার তেল, আটা, চাল- সবই তৈরি করছে পতঞ্জলি। বাবা রামদেবের এই সংস্থার দাবি, ভেজাল জিনিসের হাত থেকে দেশবাসীকে বাঁচাতেই পতঞ্জলি রাসায়নিক বর্জিত জিনিস তৈরি করছে।

এই বাজারে আরও এক জোর খবর! বাবা রামদেবের এবারের উদ্যোগ নাকি ‘নো-বল জুতা’। ক্রিকেটারদের জন্য এই ‘নো-বল শু’ আনতে চলেছেন বাবা রামদেব। আসলে, গত রোববার ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে যেভাবে ভারতের দুই বোলার অমিত মিশ্র এবং হার্দিক পাণ্ডে ‘নো-বল’ করছিলেন তাতে নাকি চিন্তায় পড়েছেন এই যোগগুরু। অমিত মিশ্রের ‘নো বল’-এর জন্য ইংল্যান্ডের বেন স্টোকস একবার আউট হয়েও ক্রিজে থেকে যান। এরপর তো বেন স্টোকস ভারতকে প্রায় হারিয়েই দিচ্ছিলেন। তাই এই যোগগুরু নাকি অবিলম্বে ‘নো-বল শু’ বের করতে চাইছেন।

‘নো-বল জুতা’-এর এই পরিকল্পনা যিনি বাবা রামদেবের মাথায় ঢুকিয়েছেন, তিনি হলেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার বীরেন্দ্র শেওয়াগ। আসলে, রোববার ভারতীয় বোলারদের ‘নো-বল’-এর হিড়িক দেখে বীরেন্দ্র শেওয়াগ টুইট করেন। সেখানেই তিনি ‘নো-বল শু’ নিয়ে বাবা রামদেবকে ধরে একটি ‘মেমে’ পোস্ট করেন। সেই থেকে বাবা রামদেবের এই ‘নো-বল শু’-এর মেমে ভাইরাল হয়ে উঠেছে। ইতিমধ্যেই টুইটারে এই ‘মেমে’ সমানে শেয়ারও হচ্ছে। বাবা রামদেব এখনও এই ‘নো-বল শু’-এর মেমের কথা জানেন কি না, তা জানা যায়নি।-এবেলা






মন্তব্য চালু নেই