মেইন ম্যেনু

ক্যারিয়ার শেষ মিসবাহর!

তাহলে ক্যারিয়ারের শেষ অধ্যায়টা দেখে ফেলেছেন পাকিস্তান অধিনায়ক ব্যাটসম্যান মিসবাহ-উল হক! আবু ধাবিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার খেলতে না নামা এবং পরিবর্তে আফ্রিদির অধিনায়কত্বের পরই এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। একই সুর বেজে উঠেছে মিসবাহ’র কথা-বার্তায়ও।
ব্যাট হাতে বাজে ফর্মের কারণে নিজে থেকেই শেষ ওয়ানডেতে খেলতে নামেননি মিসবাহ। ব্যাপারটা জানিয়েছিলেন, পিসিবি চেয়ারম্যান শাহরিয়ার খান। তার মতে, না খেলার সিদ্ধান্তটা মিসবাহর নিজের। ফর্ম ভালো নয় বলে নিজে থেকেই একটা ব্রেক নিতে চাইলেন তিনি।
পিসিবি চেয়ারম্যানের কথায় অস্পষ্টতা থাকায় মিডিয়া হাজির হয় মিসবাহর কাছেই। জানতে চাওয়া হলে পাকিস্তানের টেস্ট এবং ওয়ানডে অধিনায়ক বলেন, ‘আমি তো কখনওই বলিনি যে আর খেলবো না। এমনকি নেতৃত্বেও না থাকার কথা বলিনি। আমি শুধু চেয়েছি একটা ব্রেক নিতে। যাতে ব্যাটিংয়ে হারানো ফর্ম ফিরে পাওয়ার জন্য চেষ্টা করতে পারি। ফর্ম না থাকলে শুধু শুধু দলের বোঝা বাড়িয়ে লাভ কি!’
মিসবাহর পরিবর্তে আফ্রিদি নেতৃত্ব পাওয়ার পর মনে করা হচ্ছে আগামী বিশ্বকাপেও পাকিস্তানের অধিনায়ক থাকবেন আফ্রিদি। এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘বিষয়টা অনেক কিছুর ওপর নির্ভর করছে। ২০১৫ বিশ্বকাপ পর্যন্ত আমার পারফরম্যান্স কোথায় গিয়ে দাঁড়ায়, আমি দলে থাকতে পারবো কি পারবো না-তা দেখেই সিদ্ধান্ত নেবে। আর বিষয়টা তো পুরোপুরিই পিসিবির ওপর নির্ভরশীল।’
পাকিস্তানের দৈনিক দ্য নেশন্সের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়, আপনি কি এখনও নিজেকে ওয়ানডে অধিনায়ক মনে করেন? জবাবে মিসবাহ বলেন, ‘আমার তো অন্য কোন চিন্তা নেই। তবে হ্যাঁ, আগামী কয়েকটি টেস্টে আমি আমার ফর্ম এবং রান স্কোরের দিকে তাকাবো। কারণ, নেতৃত্ব নয়, দলে থাকতে হলে আপনাকে পারফরমেন্স দিয়েই থাকতে হবে। এটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। যদি দেখি যে আমার ফর্ম আগের মতই খারাপ। ব্যাট থেকে রান আসছে না। তখন আর বলতে পারবো না যে, আমার খেলা উচিৎ। কারণ, সবার আগে দল, দলের আগে পাকিস্তান সবসময়ই এগিয়ে থাকবে।’
নিজের সম্পর্কে মিসবাহ আরও বলেন, ‘যদি আমি ফর্মে ফিরি এবং রান পাই তাহলে আবারও ফিরে আসবো। আর যদি তা না হয়, তাহলে শুধু শুধু দলকে একটা বাজে পরিস্থিতির মধ্যে ফেলে দেওয়া কোনভাবেই ঠিক হবে না এবং এ অবস্থায় একটা সিদ্ধান্ত নেওয়াই হবে উপর্যুক্ত।’






মন্তব্য চালু নেই