মেইন ম্যেনু

কেন পারিশ্রমিক পেলেন না দীপিকা?

গত সেপ্টেম্বর মাসে শেষ হয়ে গেছে স্টার প্লাসের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘দিয়া অউর বাতি হম’। অথচ দীপিকা এখনও তাঁর পাওনা রুপি পাননি।

কিন্তু কেন?

স্টার প্লাসের জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘দিয়া অউর বাতি হম’-এর নায়িকা সন্ধ্যা ওরফে ‘দীপিকা সিং’ এখন মহাবিপদে। তিনমাস হতে চলল শেষ হয়েছে শো অথচ এখনও তাঁর পারিশ্রমিক পাওয়া বাকি। মুম্বাইয়ের একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন অনুযায়ী দীপিকা মোট ১.১৪ কোটি রুপি পাবেন প্রযোজক সংস্থার কাছ থেকে। জানা গেছে, অভিনয়ের পারিশ্রমিক হিসেবে ৯০ লাখ রুপি ও তার সুদ হিসেবে ২৪ লাখ রুপি— মোট ১.১৪ কোটি রুপিই নাকি প্রাপ্য দীপিকার।

এই পরিমাণ রুপির একটি বিল তিনি পাঠিয়েছেন প্রযোজক সংস্থার কাছে। কিন্তু প্রযোজকদের বক্তব্য, তাঁরা ওই পরিমাণ রুপি দীপিকাকে দেবেন না। বড়জোর ৬৭ লক্ষ টাকা তাঁরা দিতে পারেন। এর পিছনে তাঁদের যুক্তি হল দীপিকা প্রায়শই দেরি করে আসতেন সেটে এবং তার জন্য কাজে প্রচুর ব্যাঘাত ঘটত। এই নিয়ে দীপিকা ‘সিনটা’ বা সিনে অ্যান্ড টিভি আর্টিস্টস অ্যাসোসিয়েশনের শরণাপন্ন হলে পাল্টা আক্রমণে নামে প্রযোজক সংস্থা। তারা অভিযোগ করে যে দীপিকার দেরি করে আসার দরুন তাদের ১৩০ লাখ রুপির ক্ষতি হয়েছে। কিন্তু সত্যিই কি দীপিকার বিরুদ্ধে এই অভিযোগের কোনও ভিত্তি রয়েছে? জানা গেছে, দীপিকার মাঝেমধ্যে দেরি হতো ঠিকই কিন্তু শোয়ের নায়ক আনস রশিদ তার চেয়ে অনেক বেশি দেরি করতেন। কখনও কখনও ৬ ঘণ্টা দেরিতেও পৌঁছাতেন।

প্রযোজক সংস্থার এক গোপন সূত্রের খবর, আনস দেরি করে আসতেন বলে দীপিকাকে বসে থাকতে হতো। তাই কিছুদিন পর থেকে দীপিকাও দেরি করে আসতে শুরু করেন। অথচ আনস রশিদের সঙ্গে প্রযোজক সংস্থার পেমেন্ট নিয়ে কোনও ঝামেলা হয়েছে বলে শোনা যায়নি। তবে দীপিকার ক্ষেত্রে এমন মনোভাব কেন? এর উত্তর অবশ্য পাওয়া যায়নি। কিন্তু জানা গেছে, ‘দিয়া অউর বাতি’-র সেটে দীপিকা নিজের অনেক ব্যক্তিগত কথা বিশ্বাস করে বলেছেন সহ-অভিনেতা-অভিনেত্রীদের আর সেসব কথা মুহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে গেছে সেটের বাইরেও। তাই এই শোয়ের মাধ্যমে প্রবল জনপ্রিয়তা পেলেও এই শোয়ের কারণেই প্রচুর হেনস্থা হতে হল দীপিকাকে। সবচেয়ে বড় কথা, নিজের পারিশ্রমিকটিও পাবেন কি না, সেই বিষয়েও প্রবল সন্দেহ দেখা দিয়েছে।

সূত্র: এবেলা






মন্তব্য চালু নেই